ঠাকুরগাঁওয়ে নির্যাতিত ওই নারীর ১৩ দিন পরে মৃত্যু

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি ঃ ঠাকুরগাঁওয়ে নির্যাতিত ওই নারীর ১৩ দিন পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার বিকালে মৃত্যুবরণ করেছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঠাকুরগাঁও থানার ওসি তানভিরুল ইসলাম।

নিহত পারভিন আক্তার (২৪) জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার বড়বাড়ী ইউনিয়নের মালঞ্চা গ্রামের শফিকুল ইসলামের মেয়ে।

পারভিনের পরিবার জানায় আট মাস আগে সদর উপজেলার রহিমানপুর ইউনিয়নের পল্লীবিদ্যুৎ এলাকার নূর ইসলামের সঙ্গে তার বিয়ে হয়। “বিয়ের পর থেকেই নূর ইসলাম প্রায় সময় নেশা করে বাড়ি ফিরতো এবং স্ত্রীকে মারপিট করতো। শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিকালে ঘরের দরজা বন্ধ করে লোহার রড দিয়ে পিটাতে থাকে এবং তার দুই হাত ও দুই পাঁ ভেঙে দেয়। সে সময় পাভিন ৬ মাসের অন্ত:স্বত্তা ছিলেন। পরে স্থানীয়রা তাকে প্রথমে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। অবস্থার অবনতি ঘটলে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। চিকিৎসার ১৩ দিন পরে বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) বিকালে তার মৃত্যু হয়েছে।

পরে পুলিশ নূর ইসলাম আটক তাকে জেলহাজতে পাঠায়। পারভিনের পরিবারের দাবী নূর ইসলাম যেন কোন ভাবেই ছাড় না পায় এবং তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান।

ঠাকুরগাঁও থানার ওসি তানভিরুল ইসলাম বলেন, নূর ইসলামের বিরুদ্ধে হত্যা চেষ্টার মামলা হয়েছিল। এখন সেটা হত্যা মামলায় আনয়ন করা হবে বলে জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *