সিরাজগঞ্জে অসহায় বিধবাকে ঘর তোলার জন্য যমুনা ফাউন্ডেশনের টিন উপহার

 

দ্বীন মোহাম্মাদ সাব্বির, স্টাফ রিপোর্টার:

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলায় অসহায় বিলকিস বেগম (৫৫) নামের এক বিধবা নারীকে ঘর তৈরির জন্য টিন উপহার দিয়েছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “যমুনা ফাউন্ডেশন”। শনিবার (২২ আগস্ট) দুপুরে সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার মালশাপাড়া ঈদগাহ মাঠে বিধবা নারী বিলকিস বেগমকে আনুষ্ঠানিকভাবে ১০টি টিন তুলে দেয় যমুনা ফাউন্ডেশন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন যমুনা ফাউন্ডেশনের আহবায়ক সুজন দেব, যুগ্ম-আহবায়ক ইমতিয়াজ মিল্লাত, সদস্য সচিব সাংবাদিক ইউসুফ দেওয়ান রাজু, সদস্য আব্দুস
সোবহানসহ অন্যান্য সদস্যরা।

সিরাজগঞ্জ শহরের মালশাপাড়া এলাকার ইসমাইল হোসেনের স্ত্রী বিলকিস বেগম প্রায় ৭ বছর আগে বিধবা হন। একমাত্র ছেলে ঈদিল হোসেনকে নিয়ে শুরু হয় তার জীবন সংগ্রাম। মানুষের বাড়িতে গৃহকর্মীর কাজ করে কোনো রকমভাবে খেয়ে পড়ে বুলু মোল্লার বাড়ীর বারান্দায় দীর্ঘ ৫ বছর ধরে রাত্রিযাপন করছেন। একটি ঘরের জন্য তিনি বিভিন্ন জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক নেতাদের বাড়ীতে বাড়ীতে ঘুরেছেন। কিন্তু তেমন কারো সহযোগিতা না পেয়ে মানববেতর জীবনযাপন করতেন তিনি।

ঘরের জন্য টিন পেয়ে কান্নাজড়িত কণ্ঠে বিলকিস বেগম বলেন, আমার স্বামী ৭ বছর আগে মারা গেছেন। আমার সাধ্য ছিল না একটি ঘর তৈরি করার। কোনোরকমভাবে
বাসাবাড়ীতে কাজ করে অন্যদের বাড়ীর বারান্দায় থাকতাম। একটু বৃষ্টি হলেই পানি পড়ত। আজ ঘর তৈরি করার জন্য ১০টি পেয়ে আমি কতটা খুশি হয়েছি, তা ভাষায় প্রকাশ করতে পারব না।

ফাউন্ডেশনের আহবায়ক সুজন দেব ও সদস্য সচিব ইফসুফ দেওয়ান রাজু, ‘আর্তমানবতার সেবায় আমরা অঙ্গীকারবদ্ধ’ শ্লোগান নিয়ে একঝাক যুবকদের সমন্বয়ে গঠিত স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘যমুনা ফাউন্ডেশন’র মাধ্যমে সমাজের অসহায় দুস্থ-সুবিধা বঞ্চিতদের সহযোগিতা, দরিদ্র এতিম, অবহেলিত নারীদের সহায়তা, সার্মথ্যহীন বিবাহযোগ্য কন্যাদের বিবাহের ব্যবস্থা, বৃক্ষরোপণ ও পরিচর্যার মাধ্যমে রাস্তার সুুরক্ষা, মাদক/বাল্য বিবাহ, যৌতুক, ইভটিজিংয়ের বিরুদ্ধে সামাজিক সচেতনতা গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। সমাজের জন্য ভালো কিছু করতে প্রতিটি মানুষের যার যার সাধ্যমতো অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়ানো উচিত বলে আমরা মনে করি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *