বদলগাছীতে ইউএনও চেয়ারম্যান দিলেন সাহস; গ্রামবাসী ঠেকালেন নদী ভাঙন

বদলগাছী(নওগাঁ) প্রতিনিধি ঃ দশে মিলে করি কাজ হারি জিতি নাহি লাজ। দশের লাঠি একের বোঝা। এটা আবারও প্রমাণ করলেন গ্রামবাসী। নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার কদমগাছী গ্রামে ছোট যমুনা নদীর পানি কমতে শুরু করলে সেখানে প্রায় ৫শ মিটার এলাকা জুরে নদীর ভাঙ্গন সৃষ্টি হয়। তীব্র ভাঙ্গনে কয়েক দিনের মধ্যে নদীর বেরি বাঁধ ভাঙ্গতে শুরু করে। সমস্যাটি বার বার এলাকাবাসীসহ উপজেলা প্রশাসন নওগাঁ পানি উন্নয়ন বোর্ডকে অবগত করে কোনো ফল হয়নি। তারা শুধু এসে ভাঙ্গন স্থান পরিদর্শন করে যায়। এদিকে ভাঙ্গন না ঠেকালে পুরো বাঁধ ভেঙ্গে পড়ে এলাকাবাসীর যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে। হতাশ হয়ে পড়েন গ্রামবাসী। তাছাড়া প্রতি বছর আশি^ন মাসে এই এলাকায় অতিরিক্ত বৃষ্টিপাত হয়। এতে নদী ওভার ফ্লাড হয়ে পড়ে। এমন অবস্থায় বৃষ্টি হলে বাঁধ ভেঙ্গে পড়ে এলাকার মাঠ ঘাটসহ বাড়ী ঘর তলিয়ে যাবে। অবশেষে স্বেচ্ছাশ্রমে ভাঙ্গন ঠেকাতে গ্রামবাসীকে সাহস জোগালেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহা. আবু তাহির, স্থানীয় নেতা মাসুদ রানা, মথুরাপুর ইউপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মকবুল হোসেন ও আধাইপুর ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন চৌধুরী। তারা কিছু অর্থ দিয়ে সহযোগিতা করলেন এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ভাঙ্গন স্থানে কর্মরত গ্রামবাসীদের খাবার যোগান দিলেন। বুধবার দুপুরে তিনি নিজেও গ্রামবাসীর সঙ্গেন খাবারে শরীক হলেন। উৎসাহ উদ্দীপনা পেয়ে উজ্জীবিত গ্রামবাসী আনন্দের সঙ্গে নদীর ভাঙ্গন ঠেকালেন। গ্রামবাসী সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন আব্দুল কুদ্দুস, মথুরাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদি হাসান মিল্টন, মিঠু, বাদেশ, আলতাব, জালাল, কামরুল, মিলন, সোহেল, দেলোয়ার, ফজলু, বাবু, সোহাগ, এমরান, বজলু, মিশু, তপন, মানিক, হামিদুল, হাসু, উজ্জ্বল, রিয়াজুল, আজিজুল প্রমূখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *