১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে স্মৃতিচারণ করলেন বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের -মো: আব্দুর রহমান

স্টাফরিপোর্টার: ১৫ আগস্ট জাতীয় শোকের দিন। ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫ তম শাহাদাত বার্ষিকী ও বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের ২৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে স্মৃতিচারণ করলেন বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের ঢাকা মহানগর উত্তরের সহসভাপতি মো: আব্দুর রহমান।

স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে আবেগ আপ্লাতুুত হয়ে ভারাক্লান্ত কন্ঠে তিনি বলেন-১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট রাতে স্বাধীনতা বিরোধী চক্রের হাতে স্বপরিবারে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছিল জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। এ ঘটনার পরদিন ১৬ আগস্ট সারা দেশে ঘাতক চক্রের হোতা খন্দকার মোস্তাকের নির্দেশে মুক্তিযোদ্ধা ও আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দদের গ্রেফতার করে শুরু হয়েছিল শারীরিক নির্যাতন। অনেক দিন গ্রেফতার হওয়া মুক্তিযোদ্ধাদের কারাবন্দি রাখা হয়েছিল।
স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের ঢাকা মহানগর উত্তরের সহসভাপতি মিরপুর মনিপুর এলাকার বাসিন্দা মো: আব্দুর রহমান বলেন- আমি মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহন করতে না পারলেও আমার ভাই এক জন মুক্তিযোদ্ধা। আমি জানি সে সময়ের কথা। মুক্তিযোদ্ধার পরিবার হিসেবে আমাদেরকেও পালিয়ে থাকতে হয়েছে। সে সময় পুলিশের একটি দল অনেক মুক্তিযোদ্ধাকে গ্রেফতার করে শারীরিক নির্যাতন করেছে।
শেখ মুজিবের অনুসারী ও মুক্তিযোদ্ধা বলে অস্ত্র কোথায় রেখেছো প্রশ্ন করে। মুক্তিযুদ্ধের পর অস্ত্র জমা করে দিয়েছে বলার পরও চলতো শারীরিক নির্যাতন। দিনের পর দিন পালিয়ে থেকেছি সে সময়ে।
স্মৃতি চারণ করতে গিয়ে তিনি দৈনিক দৃষ্টি প্রতিদিন কে বলেন, এত আন্দোলন সংগ্রাম করে একটি স্বাধীন দেশ ও পতাকা আনলেন জাতির জনক বঙ্গ বন্ধ শেখ মুজিবুর রহমান। আর মাত্র সাড়ে তিন বছরের মধ্যে স্বপরিবারে নির্মমভাবে বঙ্গবন্ধুর পরিবারকে হত্যা করে স্বাধীনতা বিরোধী চক্র। সেই ব্যথা বেদনার সাথে তাদেরকে গ্রেফতার করে নিয়ে নির্যাতন করার সেই ব্যথা বেদনা কোন দিন ভোলা সম্ভব নয়।

তিনি বঙ্গবন্ধু পরিবারের আত্মার মাগফেরাত ও শান্তি কামনায় করেন।মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানার পরিবারবর্গের সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করেন ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *