সিরাজদিখানে ১১ বছরের শিশু ধর্ষণ, আটক-১

সিরাজদিখান (মুন্সিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ
মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানে ১১ বছরের শিশুকে ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষক মামুন (২১) নামে এক ধর্ষককে আটক করেছে থানা পুলিশ। সে জামালপুর জেলার মেলান্দহ উপজেলার পাথলিয়া গ্রামের মোঃ বিল্লাল মিয়ার ছেলে। গত বুধবার রাতে উপজেলার বাসাইল এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। পরদিন বৃহস্পতিবার তাকে আদালতে প্রেরণ করা হলে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দিয়েছে ওই ধর্ষক। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার দানিয়াপাড়া গ্রামস্থ শিকদার ফিলিং স্টেশনের পশ্চিম পাশের জনৈকা শেফালী বেগমের বাড়ীর একটি ঘরের একপাশে ধর্ষক মামুন ও অপর পাশের রুমে ধর্ষিতার পরিবার বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন। গত ১৯ জুলাই ধর্ষিতার পিতা মা তাদের ১১ বছরের কন্যাকে বাড়িতে রেখে দিনমজুরের কাজে যায়। ওইদিন দুপুর অনুমান সাড়ে ১২ টার দিকে ঘরে ঢুকে শিশুটিকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে মামুন। ধর্ষিতা চিৎকার করলে কৌশলে পালিয়ে যায় ধর্ষক। এ ঘটনায় গত ২০ জুলাই ধর্ষিতার মা বাছি বেগম ধর্ষক মামুনক বিবাদী করে সিরাজদিখান থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে ধর্ষক মামুনকে আটক করে আদালতে প্রেরণ করে পুলিশ।

সিরাজদিখান থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ফরিদউদ্দিন জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। ঘটনার পর থেকে আসামী পলাতক ছিল। টেকনিক্যালভাবে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করলে ফৌজদারি আইনের ১৬৪ ধারায় আসামী স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দেয়।৩ জুলাই বৃহস্পতিবার দুপুরে মুন্সিগঞ্জ আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দিয়েছে ধর্ষক।এর আগে বুধবার ২২ জুলাই গভীর রাতে সিরাজদিখান উপজেলার বাসাইল গ্রামের রাস্তা হতে ওই ধর্ষককে আটক করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *