বগুড়া শেরপুরে ৩ শিশুকে যৌন হয়রানির দায়ে যুবক আটক ॥ থানায় মামলা

স্টাফরিপোর্টার:
বগুড়ার শেরপুরে চকলেট খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে ঘরে মধ্যে নিয়ে মোবাইল ফোনে অশ্লীল ছবি দেখানো হয় ৩ শিশুকন্যাকে। এসময় ওই শিশুদের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয়াসহ যৌনহয়রানি চেষ্টা করে লম্পট যুবক জুয়েলরানা। বিষয়টি জানাজানি হওয়ায় এলাকাবাসী উত্তম-মাধ্যম দেয় ওই যুবককে এবং পুলিশ গ্রেফতার করে।
ঘটনাটি ১৪ জুলাই বগুড়ার শেরপুর উপজেলার ছোনকা (গয়লাপাড়) গ্রামে ঘটেছে। এ ঘটনায় ১৮ জুলাই শনিবার রাতে শেরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে ভুক্তভোগী এক শিশু কন্যা মা রোজিনা খাতুন।
জানা যায়, উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের বিরইল গ্রামের মোক্তার হোসেনের শিশু কন্যা খাদিজা খাতুন(৭), ফরিদুল ইসলামের কন্যা রিয়া খাতুন(৭) ও হাফিজুর রহমানের মেয়ে জান্নাতি খাতুন(৮) গত ১৪ জুলাই বুধবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে বাড়ির বাহিরে একসঙ্গে খেলাধুলা করছিল। এমন সময় পাশর্^বর্তী পাড়া ছোনকা গয়লাপাড় গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে জুয়েল রানা ওই শিশুকন্যাদের চকলেট খাওয়ানোর নামে তার শয়ন ঘরের মধ্যে নিয়ে যায়। কৌশলে ওই শিশুদের অশ্লিল ভিডিও দেখায় এবং তাদের শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে হাত ও চুম্বন দিয়ে যৌন হয়রানি করতে থাকে। এসময় ওই শিশু চিৎকার দিয়ে বাহিরে এসে তার নানী রিনা বেগমকে জানালে সে বিষয়টি প্রতিবেশীদের জানায়। এতে প্রতিবেশীরা ক্ষিপ্ত হয়ে লম্পট জুয়েল রানা উত্তম মাধ্যম দেয় এবং অন্যান্য শিশু কন্যাদের পিতা-মাতাকে জানায়।
এতে গত ১৮ জুলাই শুক্রবার রাতে যৌন হয়রানির শিকার শিশু কন্যাদের অভিভাবকদের সাথে নিয়ে রোজিনা খাতুন বাদি হয়ে লম্পট জুয়েল রানাকে আসামী করে শেরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করে।
এ ব্যাপারে শিশুর মা রোজিনা বেগম বলেন, জুয়েল ইতিপূর্বে বেশ কয়েকজন শিশুকন্যাকে যৌন হয়রানি করেছে। তাই তার দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি কামনা করছি।
এ ঘটনায় অফিসার ইনচার্জ মিজানুর রহমান জানিয়েছেন, লম্পট জুয়েল রানার বিরুদ্ধে মামলা রজ্জু করে এবং তাকে গ্রেফতার করে ১৯ জুলাই রবিবার জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *