সাতক্ষীরায় গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে আরো ১৪ জনের করোনা শনাক্ত

এস,এম,হাবিবুল হাসান :
সাতক্ষীরায় গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে আরো ১৪ জনের করোনাভাইরাসে(কোভিড-১৯) শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় আজ পর্যন্ত মোট ১শ’৪৬ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছে।এছাড়াও,করোনার উপসর্গ নিয়ে মো.বজলুর রহমান গাজী (৫২) নামে একজন ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার(২৬ জুন) দুপুরে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়রে (যবিপ্রবি) জিনোম সেন্টার থেকে পাওয়া নমুনা রিপোর্ট ১৪ জনের করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন সাতক্ষীরার স্বাস্থ্য বিভাগ।

করোনা আক্রান্তরা হলেন, শহরের পুরাতন সাতক্ষীরা দাসপাড়া এলাকার পূর্ণিমা দাস, তার স্বামী সুকুমার দাস, শহরের লস্করপাড়া এলাকার জেসমিন, শহরের সুলতানপুর এলাকার হানিফ, কালীগঞ্জ উপজেলার মৌতলা গ্রামের মনিরুল, দেবহাটা উপজেলার খানজিয়া গ্রামের নুরুল আমিন, সদর উপজেলার বিনেরপোতা মাগুরা গ্রামের সুরেন্দ্র নাথ বিশ্বাস, শ্যামনগর উপজেলার ইশ্বরীপুর গ্রামের আব্দুস সালাম, তালা উপজেলা ধানদিয়া সেনেরগাতি এলাকার আব্দুর রশিদ, কলারোয়া উপজেলার আলাইপুর গ্রামের ইয়াছিন, সাতক্ষীরার রিনা পারভীন, অনিল বিশ্বাস, শুভঙ্কর ও জিদান আলম।

সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন অফিসের ডা. জয়ন্ত সরকার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এনিয়ে জেলায় আজ পর্যন্ত মোট ১শ’৪৬ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি আরো জানান, ইতিমধ্যে স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিদের বাড়ি লক ডাউন করা হয়েছে। টানানো হয়েছে লাল পতাকা।

অপরদিকে,সাতক্ষীরার তালায় করোনাভাইরাসের(কোভিড-১৯) উপসর্গ জ্বর, সর্দি, কাশি, শ্বাসকষ্ট নিয়ে মো.বজলুর রহমান গাজী (৫২) নামে এক ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়েছে। মৃত ব্যক্তি তালা সদর ইউনিয়নের বারুইহাটী গ্রামের মৃত. সরফুদ্দীন গাজীর ছেলে ও তালা বাজারের খেয়াঘাট মোড়ের একজন মুদি ব্যবসায়ী।

শুক্রবার (২৬ জুন) ভোর রাতে নিজ বাড়িতেই তার মৃত্যু হয়।

নিহত ব্যক্তির স্বজনরা জানান, মুদি ব্যবসার পাশাপাশি দীর্ঘদিন ধরে মৌসুমী ফল আমের ব্যবসা করতো বজলুর রহমান। বেশ কয়েকদিন ধরে জ্বর, সর্দি, কাশি ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। বৃহস্পতিবার সকালে তালা হাসপাতালে করোনার নমুনাও দিয়ে আসেন। শুক্রবার ভোররাতেই নিজ বাড়িতে হঠাৎ করে তিনি মারা যান।

তালা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. রাজীব সরদার জানান, তার নমুনা সংগ্রহ করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। তবে এখনও রিপোর্ট এসে পৌঁছায়নি। তবে মৃত ব্যক্তির বাড়িসহ আশপাশের কয়েকটি বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *