চিকিৎসার টাকা যোগাড় করতে না পেরে আতœহত্যা

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি ঃ ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার গড়েয়া ইউনিয়নের চোঙ্গাখাতা গ্রামে বাসন্তী রাণী (৫৫) নামে এক বৃদ্ধ নারী চিকিৎসার টাকা যোগাড় করতে না পেরে গলায় ফাঁস দিয়ে আতœহত্যা করেছেন।

মঙ্গলবার (২৩ জুন) রাতে সদর উপজেলার গড়েয়া ইউনিয়নের চোঙ্গাখাতা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। বৃদ্ধ ওই নারী চোংগাখাতা গ্রামের মৃত চেচার বর্মনের স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানায় বাসন্তী রানী দীর্ঘ দিন ধরে ডায়াবেটিসসহ বিভিন্ন রোগে ভূগছিলেন। টাকার অভাবে চিকিৎসা করাতে পারেননি। কিন্তু গত কয়েক দিন ধরে বমি, ডায়রিয়া ও জ্বরের যন্ত্রনা সহ্য করতে না পেরে গলায় ফাঁস দিয়ে আতœহত্যা করেন। বৃদ্ধ মহিলার ছেলে হেমন্ত রায় ঝালমুড়ি ও ফুস্কার দোকান করে তাদের পরিবারের খরচ চালাতো কিন্তু করোনার ভাইরাসের কারনে প্রায় দীর্ঘ ৩ মাস থেকে দোকান পাট বন্ধ রাখায় তার আয় বন্ধ হয়ে যায়।

মায়ের মৃত্যু প্রসঙ্গে হেমন্ত রায় বলেন এই টানা পোড়েনের মধ্যে সংসারের খরচ চালাবো, না কি মায়ের চিকিৎসা করবো ? তারপরও স্থানীয় গ্রাম্য ডাক্তার দিয়ে মায়ের চিকিৎসা চালিয়ে আসছিলাম। কিন্তু গত ২৩ জুন রাতে সকলের অজান্তে কখন যে মা গলায় ফাঁস দিয়ে আত্যহত্যা করেছেন আমরা কেউ তা বুঝতে পারিনি।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি (তদন্ত) গোলাম মর্তুজা বলেন ওই বৃদ্ধ নারী বেশ কিছু দিন ধরে অসুস্থ্য ছিলেন। টাকার অভাবে ঠিকমত চিকিৎসা করাতে না পেরে আতœহত্যা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *