সাতক্ষীরায় পৃথক ঘটনায় এক বৃদ্ধ বিষপানে ও এক গৃহবধূ গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা

এস,এম,হাবিবুল হাসান :
সাতক্ষীরায় পৃথক ঘটনায় ইফাজতুল্লাহ শেখ (৯০) নামের এক বৃদ্ধ বিষপান করে ও স্বামীর উপর অভিমান করে গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে তন্দ্রা ঘোষ(২৫)নামের এক গৃহবধূ।

সাতক্ষীরার শ্যামনগরে স্বামীর উপর অভিমান করে গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করেন তন্দ্রা ঘোষ নামের এক গৃহবধূ। গৃহবধূ তন্দ্রা ঘোষ শ্যামনগর উপজেলার নুরনগর গ্রামের বাবু ঘোষের স্ত্রী ও বাগেরহাট সদর উপজেলার লাউপালা গ্রামের দুলাল দাসের মেয়ে।

বৃহস্পতিবার (০৪ জুন) ভোরে উপজেলার নুরনগর গ্রামে নিজ বাড়ির পেঁয়ারা গাছের ডালে রশি বেধে আত্মহত্যা করেন তিনি।

গৃহবধূর স্বামী বাবু ঘোষ বলেন, বুধবার রাতে আমাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। তারপর আমরা একসঙ্গে ঘুমাই। ভোর ৫টার দিকে হঠাৎ ঘুম ভাঙলে দেখি স্ত্রী পাশে নেই। পরে বাইরে এসে দেখি বাড়ির উঠানে পেয়ারে গাছে গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এরপর চিৎকারে বাড়ির লোকজনসহ প্রতিবেশীরা ছুটে আসেন।

তন্দ্রা ঘোষের বড় বোন ইন্দ্রানী বলেন, তন্দ্রা অনেকদিন ধরে মানসিক সমস্যায় ভুগছিল। মাঝেমধ্যে আত্মহত্যা করতে চাইতো। সামান্য ঝগড়ায় এমনটা কেন করলো বুঝতে পারছি না।

শ্যামনগর থানা পুলিশের উপপরিদর্শক মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, প্রাথমিকভাবে এটিকে আত্মহত্যা বলেই ধারণা করছি। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট হাতে পেলে বিস্তারিত জানা যাবে।

অপরদিকে, সাতক্ষীরা তালায় ইফাজতুল্লাহ শেখ (৯০) নামে এক বৃদ্ধ বিষপান করে আত্মহত্যা করেছে। সে হাজরাকাটি গ্রামে মৃত ময়জদ্দিন শেখের ছেলে।

বৃহস্পতিবার(০৪ জুন) সকালে তালা উপজেলার খলিলনগর ইউনিয়নের হাজরাকাটি গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে।
পারিবারিকসূত্রে জানা যায়,তিনি বহুদিনধরে অসুস্থ ছিলেন। বৃহস্পতিবার সকালে নিজ বাড়িতে তিনি বিষপান করে আত্মহত্যা করে। বিষপানের খবর জানতে পেরে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার আগেই তার মৃত্যু হয়।

তালা থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি)মেহেদী রাসেল তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *