ঘূর্ণিঝড় ’আম্ফান’ : সাতক্ষীরায় ৭ নম্বর বিপদ সংকেত

এস,এম,হাবিবুল হাসান :
সাতক্ষীরাসহ উপকূলীয় জেলায় ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ’আম্ফান’। আগামী মঙ্গলবার অথবা বুধবার যেকোন সময় আছড়ে পড়বে বাংলাদেশের উপকূলে এই ঘূর্ণিঝড় ’আম্ফান’। এরই মধ্যে সাতক্ষীরাসহ উপকূলীয় জেলা ও তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চর সমূহকে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

সাতক্ষীরায় ঘূর্ণিঝড় ‘আম্ফান’ মোকাবিলায় প্রস্তুত রয়েছে ১শ’৪৭ টি সাইক্লোন শেল্টার ও ১ হাজার ৭শ’ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আছে বলে জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল জানান।এছাড়াও উপকূলিয় এলাকা থেকে মানুষজনকে আশ্রয়কেন্দ্রে আসার জন্য চলছে মাইকিং।

এদিকে ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের প্রভাবে মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত নামিয়ে তার পরিবর্তে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। উপকূলীয় জেলা সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, ভোলা, বরিশাল, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, নোয়াখালী, ফেনী, চট্টগ্রাম ও তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ এবং চরসমূহ ৭ নম্বর বিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে।

এছাড়া চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্রবন্দরে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত নামিয়ে তার পরিবর্তে ৬ নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

ঘূর্ণিঝড় এবং অমাবস্যার প্রভাবে উপকূলীয় জেলা সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, বরগুনা, পটুয়াখালী, ভোলা, বরিশাল, লক্ষ্মীপুর, চাঁদপুর, নোয়াখালী, ফেনী, চট্টগ্রাম ও তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ এবং চরসমূহের নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৪ থেকে ৫ ফুট অধিক উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *