বগুড়ার নন্দীগ্রামে ডোবা থেকে কিশোরী বধুর লাশ উদ্ধার

রাজিবুল ইসলাম ,বগুড়া প্রতিনিধি।।
বগুড়ার নন্দীগ্রামে স্থানীয় একটি ডোবার মধ্য থেকে ফাতেমা আকতার (১৭) নামের এক কিশোরী বধুর লাশ উদ্ধার করা করেছে পুলিশ । ধারনা করা হচ্ছে তাকে হত্যার পর লাশ ডোবার মধ্য ফেলে দেয়া হয়েছে।

নিহত কিশোরী বধু ফাতেমা সদর উপজেলার ১নং বুড়ইল ইউনিয়নের কৈগাড়ী গ্রামের রমজান আলীর মেয়ে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ফাতেমা আকতারের সাথে প্রায় ২ বছর পূর্বে মাত্র ১৫বছয় বয়সে দুপচাঁচিয়া উপজেলার আল-আমিনের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই বাবার বাড়িতেই স্বামীকে নিয়ে বস্ববাস করে আসছিল ফাতেমা । তাদের সংসারে ১ বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। স্বামী আল-আমিন দিনমুজুরির কাজ করে সংসার চালাতো। তাদের পরিবারে মাঝেমধ্যেই পারিবারিক কলহ লেগেই থাকতো। এমনকি তাদের দাম্পত্য জীবনে একাধিকবার মারপিটের ঘটনাও ঘটেছে। নিহতের পরিবারের দাবী স্বামী আল আমিন তাকে একাধিকবার মেরে ফেলার চেষ্টা করেছিল ।

এমতাবস্থায় গত ৫ই মে রাতে ফাতেমা রহস্যজনক ভাবে বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়ে যায়। সে রাতে সম্ভাব্য স্থানে সকল স্থানে তাকে খোঁজাখুঁজি পরেও তার সন্ধান মেলেনি।

গতকাল ৬ই মে (বুধবার)সকাল আনুমানিক সাড়ে ৯ টায় তার স্বামী আল আমিন কৈগাড়ী গ্রামের জনৈক মজিবর রহমানের বাড়ির পিছনের একটি ডোবার মধ্য স্ত্রী ফাতেমার লাশ দেখতে পেয়ে সকলকে জানায়। পরে এলাকাবাসী এগিয়ে এসে ডোবা থেকে তার লাশ উদ্ধার করে। পরে স্থানীয়রা থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে বগুড়ার শজিমেক হাসপাতালের মর্গে পাঠায় ।
এদিকে ঘটনার কবর পেয়ে নন্দিগ্রাম-কাহালু সার্কেলের এএসপি আহম্মেদ রাজিউর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এসময় থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি সার্বিক)তার সাথে ছিলেণ।

এ বিষয়ে নন্দীগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি সার্বিক) শওকত কবিরের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, এ ঘটনায় সন্দেহ ভাজন হিসাবে নিহত ফাতেমা আকতারের স্বামী আল-আমিনকে আটক করা হয়েছে।
শেষ খবর পর্যন্ত এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করার প্রস্ততি চলছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *