৯ কেজি গাঁজা দিয়ে বানানো মোটর সাইকেল সিট বগুড়ার ট্রাফিক পুলিশের হাতে পাকড়াও

রাজিবুল ইসলাম রক্তিম, বগুড়া প্রতিনিধি।।
অভিনব কায়দায় গাঁজা দিয়ে বানানো সিটের মোটর সাইকেল সহ সাঈদ(৩০)নামের এক মাদক পাচারকারীকে গ্রেপ্তার করেছে ট্রাফিক পুলিশের একটি দল। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার দুপুরে বগুড়া রংপুর মহাসড়কের মোকামতলা পুলিশ চেকপোষ্ট এলাকায় ।
মুহা সাঈদুল ইসলাম ওরফে সাঈদ কুড়িগ্রামের বেরুবাড়ী সরকারপাড়া এলাকার সামছুল হকের পুত্র ।
পুলিশের চোখকে ফাঁকি দিতে মোটর সাইিকেলের সিট বানানো হয়েছিল প্রায় ৯ কেজি গাঁজা দিয়ে। গাঁজা দিয়ে বানানো সিটে বসে মোটরসাইকেল চালিয়ে কুড়িগ্রামের বেরুবাড়ী সীমান্ত এলাকা থেকে বগুড়া শহরে যাবার পথে ট্রাফিক পুলিশের হাতে ধরা খেল ওই মাদক পাচারকারী।
জানাগেছে, মোকামতলা বন্দর চেকপোস্টে মোটরসাইকেল (কুড়িগ্রাম -হ-১২-৪০৮৪) নাম্বারের একটি ১২৫হিরো গ্লামার থামানোর সংকেত দেন কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশের টিএসআই আশুতোষ মৈত্র এবং এটিএসআই আহম্মদ আলী। এময়মোটর সাইকেলের কাগজপত্র যাচাই করার এসআই আশুতোষের নজরে আসে যে, অন্যান্য মোটরসাইকেলের তুলনায় এই মোটরসাইকেলের সিটটি স্বাভাবিকের চেয়ে একটু উঁচু। পুলিশ সদস্যরা এসময় ট্রাফিক ইন্সপেক্টর রেজা খানকে তাদের সন্দেহের কথা জানায়। এসময় তারা সিট খুলে তার দেখতে পায় ,পুরো সিটটাই তৈরী গাঁজা দিয়ে । ওই মোটর সাইকেলের সিটে ভরা হয়েছিল প্রায় সব মিলিয়ে মোটরসাইকেল থেকে ৯ কেজি গাঁজা ।পরে পুলিশ ওই গাঁজা জব্দ করে।
মোকামতলা ট্রাফিক ফাঁড়ির ইনচার্জ রেজাউল করিম খান এর সাথে কথা বলা হলে তিনি জানান, অতি সূক্ষতার সাথে ওই মোটর সাইকেলের সিটটি ফোমের পরিবর্তে গাঁজা দিয়ে বানানো হয়েছে।সিটের কভারটি শুধু স্বাভাবিক ভাবে কালো পলিথিন দিয়ে মুড়িয়ে দেয়া হয়েছিল। ইন্সপেক্টর রেজা আরো জানান , আটকের সময় আটক ব্যাক্তি ভূল তথ্য দিয়ে তাদের জানিয়েছিল তার বাবার নাম রুস্তোম আলী ,এবয় তার বাড়ী গাইবান্ধা সদর উপজেলার নয়নপুরে। পরে সে জানায় তার বাবার নাম সামছুল হক এবং তার বাড়ী কুড়িগ্রামের সীমান্ত বেরুবাড়ী এলাকায় ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *