নবান্ন উৎসবের সঙ্গে মিশে আছে বাঙালির হাজার বছরের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি- বগুড়া জেলা প্রশাসক

বগুড়া প্রতিনিধি।।
বগুড়া সদর উপজেলা পরিষদের আয়োজনে উৎসব মুখর পরিবেশেস নবান্ন উৎসব পালিত হয়েছে।
শনিবার সকালে বগুড়া সদর উপজেলা পরিষদ চত্বরে আয়োজিত নবান্ন উৎসবে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বগুড়ার জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহম্মেদ।

উৎসব উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক মুহা ফয়েজ আহম্মেদ বলেন, আমরা যে উৎসবগুলোর মধ্য দিয়ে বাঙালীর পরিচয়, ঐতিহ্য তুলে ধরি তার মধ্যে নবান্ন অন্যতম। বহু শতাব্দী ধরে পালিত হয়ে আসা নতুন ফসল ঘরে তোলার উৎসবটি বাঙালিদের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির একটি অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ। ‘নবান্ন উৎসবের সঙ্গে মিশে আছে বাঙালির হাজার বছরের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি। নাগরিক জীবনের কোলাহলে আমরা আমাদের গ্রামীণ ঐতিহ্য হারাতে বসেছি। শহরের শিশু-কিশোরদের আবহমান বাংলার কৃষি ঐতিহ্যের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিতে হবে। নিজের সংস্কৃতিকে ধারণ করে মাটির কাছাকাছি থেকে মেধা মননে নতুন প্রজন্মকে সমৃদ্ধ করে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। আমাদের সংস্কৃতি বহু পুরনো ও ঐতিহ্যবাহী। হারিয়ে যাওয়া ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে হবে।

সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবু সুফিয়ান সফিক এর সভাপতিত্বে উৎসব আয়োজনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকারের উপ পরিচালক সুফিয়া নাজিম, বগুড়া চেম্বারের সভাপতি মাসুদুর রহমান মিলন, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আজিজুর রহমান, জেলা ত্রাণ কর্মকর্তা আজাহার আলী মন্ডল, বগুড়া চেম্বারের সহ সভাপতি মাফুজুল ইসলাম রাজ, জেলা পরিষদ সদস্য মাহফুজা খানম লিপি, সদর থানার অফিসার ইনচার্জ এসএম বদিউজ্জামান, উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান এইচএম ইকবাল ও ডালিয়া নাসরিন রিক্তা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা গোলাম মোর্শেদ।

চিরায়ত বাংলার ঐতিহ্য পিঠা নিয়েই বগুড়ায় দিনব্যাপী নবান্ন উৎসবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ও সামাজিক সংগঠনগুলো অংশগ্রহন করেছিল। গ্রামবাংলার লাঠিখেলা, চরকী, ধানকাটার সাথেই আয়োজন করা হয় পিঠা উৎসবের। বিভিন্ন নামে পিঠা নিয়ে ৩০ টি স্টল দিয়ে সাজান বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, শিক্ষার্থীরা। বগুড়া সদর উপজেলা চত্বরে জাতীয় নবান্ন উৎসব উপলক্ষে গ্রামীণ মেলা বসে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *