সন্তানের দায়িত্বহীনতা, প্রশাসনের হস্তক্ষেপে ২ মা বাড়িতে ফেরা

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি ঃ করোনা ভাইরাসের প্রাদূর্ভাবে খাদ্যের অজুহাত দেখিয়ে নীতিনৈতিকতার তোয়াক্কা না করে বাডি থেকে বেড় করিয়ে দেয়া দুঃখিনী মা’কে ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাড়িতে ফিরিয়ে নিল সন্তানরা।
বৃহস্পতবিার (৩০ এপ্রিল) সদর উপজলো নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ-আল-মামুন আক্চা ইউনিয়নের কশালবাড়ি গ্রামে গিয়ে ওই বৃদ্ধাকে ছেলেদের হাতে তুলে দেন। এ সময় তাদের মাঝে শাড়ি, কম্বল ও শুকনো খাবার বিতরণ করেন। আমেনা বেগম (৭৬) মৃৃত খলিলুর রহমানের স্ত্রী।
জানা যায়, কয়েকদিন আগে তার ছেলেরা বাড়ি থেকে বের করে দেয়। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনা ঝড় উঠে। বিষয়টি জেলা প্রশাসনের দৃষ্টিগোচর হয়।
অপরদিকে সদর উপজলোর ঘনিমহেশপুর গ্রামের মৃত বিষু মোহাম্মদের স্ত্রী ফজিরন বেগমকে ১০ বছর র্পূবে বাড়ি থেকে বেড় করে দেয় ছেলে ফজলুর রহমান ও পুত্রবধূ ফিরোজা বেগম। পরে স্থানীরা এলাকায় একটি টিনের ঘর তুলে দিলে সেখানেই বসবাস করতে থাকেন মা ফজিরন। সম্প্রতি প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাড়িতে ঠায় হয় ওই মায়ের।
আকচা ইউপি চেয়ারম্যান সুব্রত কুমার বর্মণ এ প্রসঙ্গে বলেন এধরনের ঘটনা আমাদের সমাজে কোন ভাবেই কাম্য নয়। ওই পরিবারের খোচ খবর নিয়ে সমস্যা গুলো চিহ্নিত করে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন মানব কল্যাণ পরিষদ-এমকেপি’র সমন্বয়কারি মৌসুমী রহমান বলেন সমাজের অবক্ষয় ঘটেছে, পারিবারিক শিক্ষা, নৈতিক শিক্ষা থেকে মানুষ সড়ে দাড়িয়েছে, রীতিনীতির তোয়াক্কা না করে যে যার মতো করে চলতে চাইছে, মানুষের সামাজিক দায়িত্ববোধে অভাব দেখা দিয়েছে।
ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ-আল-মামুন ছেলেদেরকে তার মায়ের প্রতি যতœ নেয়ার পরামর্শ দেন। তবে তিনি তাদের সর্তক করে দিয়ে বলেন পূনরায় এর ব্যাপ্তয় ঘটলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ওই মায়ের নিয়মিত খোঁচ খবর নেয়ার জন্য স্থানীয় ইউপি সদস্যকে দায়িত্ব প্রদান করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *