কষ্টে অর্জিত জমানো ২৫ হাজার টাকা প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দিলেন দরিদ্র পরিবারে মেয়ে মনিÔ

এমদাদুল ইসলাম ভূট্টো, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব মোকাবিলায় কর্মহীন, অসহায় ও অভুক্ত মানুষের সাহাযার্থে চাকুরির জমানো ২৫ হাজার টাকা প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দিয়ে উদাহারণ সৃষ্টি করেছেন ঠাকুরগাঁওয়ের দরিদ্র পরিবারের মেয়ে উম্মে কুলসুম (মনি)।
বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) জেলা প্রশাসক ড. একেএম কামরুজ্জামান সেলিমের হাতে করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ অসহায় দরিদ্রদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে এই অর্থ তুলে দেন তিনি।
জানা যায়, জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার পৌর শহরের ৫নং ওয়ার্ড বথপালিগাঁও মহল্লার মৃত মোশারুল ইসলামের মেয়ে মনি। তিনি জানান, টিভিতে দেখেছি গরিব অসহায় মানুষেরা অর্ধাহারে মানবেতর দিন পাড় করছে। তাই আমি ভাল একটা চাকুরির জন্য অল্প অল্প করে জমানো টাকা হতদরিদ্র গরিব মানুষের জন্য দিলাম। তিনি আরো জানান আমি মেডিক্যাল অ্যাসিস্টেন্ট কোর্স সম্পন্ন করেছি। বিএডিসির রেজিস্টেশন নম্বর আছে, আমি একটি বে-সরকারি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থায় চুক্তি ভিত্তিক কাজ করছি। করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় দেশের যে কোন কমিউনিটি ক্লিনিক, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে স্বেচ্ছা শ্রমে কাজ করতে আগ্রহী।
মনির মা মোছাঃ রেহানা বেগম বলেন আমার এক মেয়ে এক ছেলে। সন্তানদের নিয়ে গর্ববোধ করি। তার এই উদ্যোগে আমি গর্বিত হয়েছি।
মানবাধিকার কর্মী ডালিম হোসেন বলেন তার এই উদ্যোগে আমি অভিভুত। সমাজের বৃত্তবানদের তার কাছ থেকে শিক্ষা নেয়া উচিৎ।
ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিম আবেগ আপ্লাত হয়ে বলেন, এতিম মেয়ে মনি সরকারি চাকুরির জন্য ২৫ মাস ধরে জমানো টাকা এভাবে অসহায় দরিদ্য মানুষের জন্য দেয়াটা আমি অনুকরণীয় বলে মনে করছি। তিনি একজন স্বাস্থ্য সহকারি হয়ে করোনা ভাইরাসের কারনে দেশের পরিস্থিতি উপলব্ধি দরিদ্র, অসহায় কর্মহীন মানুষের কথা ভেবেছেন এটাই বিশাল বড় পাওয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *