বদলগাছীতে মাঠ জুড়ে কৃষকের সোনালী স্বপ্ন ঘড়ে তুলতে ইউএনওর পরামর্শ

বদলগাছী(নওগাঁ) প্রতিনিধি ঃ নওগাঁর বদলগাছী ৮ ইউনিয়নের মাঠ জুড়ে দোল খাচ্ছে হাজার হাজার কৃষকের সোনালী স্বপ্ন। দুচোখ ভরে জমে ওঠা সেই সোনালী স্বপ্ন ঘড়ে তুলতে গ্রামে গ্রামে কৃষকদের পরামর্শ দিচ্ছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহা. আবু তাহির। চলতি মৌসুমে করোনা প্রতিক’ল পরিবেশের মধ্যেই কৃষকদের সঠিক পরিচর্চায় মাঠে মাঠে জমে উঠেছে বোরো ধান। সবুজ মাঠ এখন সোনালী রং ধারণ করেছে। ধানের শীষ বাতাসে দুলছে আর নাড়া দিচ্ছে কৃষকের মনকে। কৃষকরা প্রার্থনা করছে মহান সৃষ্টিকর্তার কাছে। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে মাঠে মাঠে ধান কাটা শুরু হবে। আকাশ যেন ভালো থাকে। রোদ আর গা ঘামানো পরিশ্রমে মাঠ জুরে সোনালী স্বপ্ন যেন আরো রঙিন হয়ে ঘড়ে ওঠে। এবার নদী নালা খাল বিল নিচু স্থানসহ সব জায়গাতেই ধান ভালো হয়েছে। শতভাগ বাম্পার ফলন আশাবাদী কৃষকরা। প্রতি বছর বোরো মৌসুমে স্বাভাবিক সময়ে প্রায় ৩০/৪০ শতাংশ শ্রমিক সংকট থাকে। কিন্তু এর সংখ্যা চলতি মৌসুমে তীব্রতর হওয়ার আশঙ্কা বোধ করছে এলাকাবাসী। তবে করোনা পরিস্থিতির মধ্যে বিভিন্ন জেলা থেকে শ্রমিকরা না আসলে দুঃখের সীমা ছাড়িয়ে যাবে কৃষকদের। তবে শ্রমিক সংকট মোকাবিলায় কৃষকদের আশার আলো দেখাচ্ছে কম্বাইন হারভেস্টার(ধান কর্তন ও মাড়াই যন্ত্র)। এ যন্ত্রের সহযোগিতায় কম খরচে বোরো ধান ঘড়ে তুলতে পারবে কৃষকরা।

হলুদবিহার গ্রামের কৃষক এনামুল হক, আব্দুস ছাত্তার, দুধকুড়ি গ্রামের আব্দুস সালাম জানায়, প্রতি বছরই শ্রমিক সংকট দেখা দেয়। এবার করোনা পরিস্থিতিতে যদি বাহির জেলা থেকে শ্রমিক না আসে তাহলে ধান ঘড়ে তোলা দায় হয়ে পড়বে এবং অতিরিক্ত খরচে লোকসান গুণতে হবে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হাসান আলী জানান, উপজেলায় ৮ ইউনিয়নে ১১ হাজার ২৭৫ হেক্টর জমিতে বোরো চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। আর অর্জিত হয়েছে লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও বেশি ১১ হাজার ৩০০ হেক্টর জমি এবং তিনি বাম্পার ফলনের আশাবাদী।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, কৃষকরা যাতে নির্বিঘেœ বোরো ধান ঘড়ে তুলতে পারে এ বিষয়ে দিক নির্দেশনা দিচ্ছে। বহিরাগতরা ধান কাটতে আসলে তাদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়া কম্বাইন হারভেস্টার মেশিন দেওয়া হয়েছে। যার মাধ্যমে অতি অল্প খরচে দ্রুত সময়ে ধান কাটা মাড়া করে ঘড়ে তুলতে পারবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *