সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে ঢাকা ফেরত এক যুবকের মৃত্যু

এস,এম,হাবিবুল হাসান :
সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে ঢাকা থেকে বাড়ি ফেরার ৫ দিনের মধ্যে হারুন অর রশিদ সুমন (২৮) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। সে উপজেলার ধলবাড়িয়া ইউনিয়নের কামারগাঁতী গ্রামের ছবেদ আলীর ছেলে এবং কামারগাঁতী মাদ্রাসায় প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে ছিল।

শনিবার(২৫ এপ্রিল)ভোর ৬ টায় সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, সুমন ঢাকা শহরে একটি ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানে সেলসম্যান হিসাবে কর্মরত ছিলেন। প্রতিষ্ঠানটির মালিক করোনা আলামত নিয়ে মারা য়ায়। সুমনসহ তার প্রতিবেশি আরও ৫ জন গত ২০ এপ্রিল সন্ধ্যায় এ্যাম্বুলেন্স যোগে বাড়িতে আসে।
সংবাদ পেয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুর রব সুমন সহ তিনজনকে পাশ্ববর্তী কামারগাঁতী মাদ্রাসায় প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। সেখানে সে অসুস্থ হয়ে পড়লে শুক্রবার (২৪ এপ্রিল) সন্ধ্যায় পরিবারের সদস্যরা প্রথমে শ্যামনগর হাসপাতাল ও পরে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার(২৫ এপ্রিল) ভোর ৬ টায় মারা যায়।

কালিগঞ্জ উপজেলার ধলবাড়ীয়া ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শওকাত হোসেন ও ৭ নং ওয়ার্ড সদস্য আব্দুর রব জানান, সুমনের মৃত্যু হয়েছে শুনেছি। সকালে লাশ বাড়িতে আনা হলে উপজেলা প:প: কর্মকর্তা ডা. শেখ তৈয়েবুর রহমানের জানালে তিনি লাশ দেখে লাশ দাফন করতে বলেছেন।

কালিগঞ্জ উপজেলা প:প: কর্মকর্তা ডা. শেখ তৈয়েবুর রহমান জানান, মৃত্যুর খবর শুনে ঘটনাস্থলে গিয়ে টেষ্টের জন্য আলামত নিয়ে ঢাকায় প্রেরন করবো, সেখানের রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত বলা যাবেনা কি কারণে মৃত্যু হয়েছে।

কালিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মোজাম্মেল হক রাসেল জানান,
হারুন অর রশিদ সুমন, বাবা, ছবেদ আলী, মাতা, হা‌ফিজা, গ্রাম কামারগাতী এলাকায় মৃত্যুর ঘটনায় ৬ টি বাড়ী ও রওজাশরীফ লকডাউন করা হয়েছে। সেখানে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ হতে লাল পতাকা ও ব্যানার টানিয়ে দেয়া হয়েছে। সুমনের পরিবারের সকলের স্যাম্পল নিয়ে পরীক্ষা করার জন্য বলা হয়েছে। পরীক্ষার রেজাল্ট পাওয়ার পূর্ব পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *