নিজের ইতিহাস গড়া জার্সিটি নিলামে তোলার ঘোষণা দিয়েছেন বাবু

এস,এম,হাবিবুল হাসান :
সাতক্ষীরার কৃতি সন্তান সাবেক ফিফা রেফারি তৈয়ব হাসান বাবু নভেল করোনাভাইরাসে(কোভিড-১৯) আক্রান্তদের সহায়তায় নিজের ইতিহাস গড়া জার্সিটি নিলামে তোলার ঘোষণা দিয়েছেন ।নিচ্ছেন না বাড়ি ভাড়া।তার সুনাম রয়েছে দেশে ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে।

প্রত্যেক ক্রীড়াবিদের ক্যারিয়ারে কিছু স্মরণীয় মুহূর্ত থাকে। সেই মুহূর্তগুলো ধরে রাখতে এর স্মারক হিসেবে থাকা ব্যাট, জার্সি, বল, ক্যাপ, কিংবা স্ট্যাম্প পরম যত্নে আগলে রাখতে দেখা যায় ক্রীড়াবিদদের।তৈয়ব হাসান বাবু ২০১৩ সালে নেপালের কাঠমন্ডুতে দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম রেফারি হিসেবে সাফের ফাইনাল পরিচালনা করেন। সে ম্যাচে ভারতকে ২-০ গোলে হারিয়ে আফগানিস্তান চ্যাম্পিয়ন হয়। এই ম্যাচে যে জার্সিটি পরে খেলা পরিচালনা করেন তৈয়ব হাসান, সেটিই নিলামে তোলার ইচ্ছা তাঁর প্রকাশ করেছেন।

তৈয়ব হাসান বাবু বলেন, ‘আমি হয়তো কোনো ক্রীড়াবিদ নই। নামী দামিও কেউ নই। কিন্তু তারপর ভেবেছি এই সময়ে মানুষের জন্য কিছু করা উচিত। আমার সামান্য আর্থিক অনুদানে যদি একটি মানুষও উপকৃত হয় সেটিই হবে আমার স্বার্থকতা। তাই সাফ ফাইনালের জার্সিটি নিলামে তুলব। সেটা থেকে প্রাপ্ত অর্থ করোনায় ক্ষতিগ্রস্থদের দেব।’

তৈয়ব হাসান বাবু তাঁর বাড়িতে করোনার কারণে ক্ষতিগ্রস্তদের কাছ থেকে বাসা ভাড়াও নিচ্ছেন না এপ্রিল থেকে। টিন শেডের বাড়ি ভাড়া দিয়েছেন তৈয়ব।

বাংলাদেশে কোনো রেফারি হিসেবে সবচেয়ে বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচ পরিচালনা করার রেকর্ডও তারই। টানা ১০ বছর এএফসির এলিট প্যানেলে ছিলেন। এটিও রেকর্ড। এশিয়ার সেরা ২৫ রেফারির তালিকায় ঢুকেছেন তিনি।

আন্তর্জাতিক রেফারি ছিলেন ১৯৯৯-২০১৬ পর্যন্ত। দীর্ঘ ১৮ বছরে ১শ’র বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচ পরিচালনা করেন। বিশ্বকাপ বাছাই, অলিম্পিক বাছাই, এএফসি চ্যাম্পিয়নস লিগ, এএফসি কাপ, দুটি এশিয়ান গেমস, এএফসি বিভিন্ন টুর্নামেন্টের ফাইনাল রাউন্ড, সাফ, সাফ গেমসসহ অনেক ম্যাচ পরিচালনার অভিজ্ঞতা আছে তাঁর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *