শেরপুরে পালস্ ক্লিনিকে সেবিকার লাশ উদ্ধার

স্টাফরিপোর্টার:
বগুড়ার শেরপুরে হামছায়াপুর দক্ষিনপাড়া এলাকা থেকে ২২ এপ্রিল বুধবার বিলকিছ (২৮) নামের এক নার্সের লাশ উদ্ধার করেছে শেরপুর থানা পুলিশ। সে পালস্ ক্লিনিক এ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে সেবিকার কাজ করত। এ ঘটনায় বিলকিসের স্বামী শাহাজানকে আটক করা হয়েছে।
এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়, উপজেলার শাহবন্দেগী ইউনিয়নের হামছায়াপুর দক্ষিনপাড়া গ্রামের শাহজাহান আলীর স্ত্রী বিলকিস কাঠালতলা এলাকার পালস্ ক্লিনিক এ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে সেবিকার কাজ করছিল। তার ৩ বছরের দাম্পত্য জীবনে স্বামী স্ত্রীর মাঝে পারিবারিক কলহ লেগেই থাকত। ২১ এপ্রিল মঙ্গলবার রাতে স্বামী স্ত্রী দুজনেই ঝগড়া করে ঘুমিয়ে পড়ে। ২২ এপ্রিল বুধবার সকাল ৯ টায় বিলকিসের ডিউটি ছিল। কিন্তু বিলকিস ডিউটিতে না আসায় সহযোগী নার্স বিপাশা সকাল সাড়ে ১০টায় তার মোবাইলে কল করলে স্বামী শাহজাহান কলটি ধরে বিলকিসকে ডাকতে থাকে। তার কোন সাড়া না পেয়ে শাহজাহান তার মাকে ডেকে আনে দেখে সে মারা গেছে। এ ঘটনায় এলাকাবাসী শেরপুর থানায় খবর দিলে এসআই আতিক ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাঠায়। এবং স্বামী শাজাহানকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।
এ ব্যাপারে শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ হুমায়ুন কবীর বলেন, শরীরে কোন আঘাতের চিহ্ন নেই। তবে ময়না তদন্তের রিপোর্ট আসলে জানা যাবে কিভাবে মারা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *