আরও বেশি কর্তৃত্ব নিয়ে নতুন পদে মাহাথির

ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগ করে মালয়শিয়াকে টালমাটাল অবস্থায় ফেলে দেয়ার পর প্রতিদ্বন্দ্বী রাজনৈতিক দলগুলো মাহাথির মোহাম্মদের অনুগ্রহ পাওয়ার চেষ্টা করেছে।

কিন্তু নিজের ক্ষমতাকে আরও শক্তিশালী ও পাকাপোক্ত করে অন্তবর্তীকালীন প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নিয়ে নিজ কার্যালয়ে ফিরে এসেছেন তিনি। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে এমন দাবি করা হয়েছে।

বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির সোমবার পদত্যাগ করেন। কিন্তু নতুন নেতা নির্বাচিত হওয়ার আগ পর্যন্ত দেশটির রাজা তাকে অন্তবর্তীকালীন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব দেন।
এর মধ্য দিয়ে একজন স্থায়ী নেতা হিসেবে ৯৪ বছর বয়সী মাহাথির সব ধরনের কর্তৃত্ব হাতে পেয়েছেন। এতে ৭২ বছর বয়সী আনোয়ার ইব্রাহীমের সঙ্গে গঠিত তার অজনপ্রিয় ও ভঙ্গুর রাজনৈতিক জোটটি ভেঙে পড়েছে।

বছর দুয়েক আগে দুর্নীতিতে জর্জরিত নাজিব রাজাক সরকারকে হটাতেই তারা এই জোট গঠন করে নির্বাচনী বিজয়ী হন।
নতুন ক্ষমতা হাতে পাওয়ার পর ২০০৩ সালে নির্বাচনের আগে দেয়া প্রতিশ্রুতি অনুসারে আনোয়ার ইব্রাহীমের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তরের বাধ্যবাধকতা থেকেও তিনি রেহাই পেয়েছেন।

নির্বাচনী জরিপ প্রতিষ্ঠান মেরদেকার পরিচালক ইব্রাহীম সুফিয়ান বলেন, নিজ খুশিমতো তিনি এখন যেকোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন।

সোমবার তিনি নিজের পুরো মন্ত্রিসভা ভেঙে দিয়েছেন। কাজেই একটি নতুন রাজনৈতিক জোট গঠনেরও সুযোগ তৈরি হয়েছে তার সামনে। ডেমোক্রেটিক অ্যাকশন পার্টি বলছে, তারা মাহাথিরকেই প্রধানমন্ত্রী পদে দেখতে চাচ্ছেন। তিনি পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *