জঙ্গীবাদ হচ্ছে ইসলামের বিরুদ্ধে আর্ন্তজার্তিক যড়যন্ত্র ইসলামের বিরুদ্ধে চলমান দুশমনির অংশ -র‌্যাব ডিজি

বগুড়া প্রতিনিধি।।
র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যটালিয়ন (র‌্যাব)এর মহাপরিচালক (ডিজি) ড.বেনজীর আহম্মেদ বলেছেন, জঙ্গীবাদ হচ্ছে ইসলামের বিরুদ্ধে একটি বড় আর্ন্তজার্তিক যড়যন্ত্র এবং ইসলামের বিরুদ্ধে চলমান দুশমনির অংশ। জঙ্গীবাদের কারণে মধ্যপ্রাচ্যে চলছে ভ্রাতৃঘাতি যুদ্ধ , ক্ষতি গ্রস্ত হচ্ছে মুসলমান আর লাভবান হচ্ছে অস্ত্র ব্যবসায়ীরা। তিনি বলেন , ইসলাম ও মুসলমানদেও ভাবমুর্তি নষ্ট করাই হচ্ছে জঙ্গীবাদের মুল উদ্দেশ্য ।
র‌্যাব ডিজি মঙ্গলবার বিকেলে বগুড়া পুলিশ লাইন্স ময়দানে আয়োজিত এক জঙ্গীবাদ ,সন্ত্রাস ও মাদক বিরোধি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য দিতে গিয়ে উপরোক্ত কথা বলেন ।
সমাবেশে সভাপতিত্ব করেণ , বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞা বিপিএম(বার)। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী রেঞ্জের ডি আই জি এ কে এম হাফিজ আক্তার বিপিএম (বার) , র‌্যাবেব এডিজি (অপারেশন ) কর্নেল তোফায়েল মোস্তফা সারোয়ার বিপিএম , পিএসসি।
সমাবেশে প্রধাণ অতিথি র‌্যাব ডিজি আরো বলেন , রাসুল (সাঃ) এর ইন্তেকালের কিছুদিনের মধ্যেই বাংলাদেশে সাহাবা, তাবে ইন , তাবে তাবেইন এবং আরবীয় মুসরমান বনিকদের মাধ্যমে ইসলামের আগমন ঘটে। পরে মুসলিম শাসনের বিস্তারের পর সুফি দরবেশরা জাপাতের শ্রেনী বৈষম্যের বিপরীতে সাম্য, মৈত্রী এবং সামাজিক ন্যায় বিচারের বানীর সাথে আধ্যাতিকত্বের পয়গাম নিয়ে আসলে নির্যাতিত নিপীড়িত মানুষ দলে দলে ইসলামের ছায়াতলে আশ্রয় গ্রহন করে। এদেশে ইসলামের বি¯তারে রাজশক্তির মাধ্যমে হয়নি ।
এদেশের মুসলমানরা শান্তিপ্রিয়। তারা অশান্তি সন্ত্রাস পছন্দ করেনা।
তিনি বলেন , তবে প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পর বৃটিশরা মধ্যপ্রাচ্যকে টুকরা টুকরা করে এবং তাদের ইন্ধনে ওহাবী ও সালাফি মতাদর্শের উদ্ভব হয়। এই সালাফিরাই হচ্ছে জঙ্গীবাদের ইন্ধন দাতা ও উৎস।
তিনি বলেন, দূর্নিতি ,মাদক, সন্ত্রাস , জঙ্গীবাদের মাধ্যমে অস্থিতিশীলতার দানব মাথা চাঁড়া দিয়ে ওঠার চেষ্টা করে। যা দমন করতে দরকার সমাজের লিডার হিসেবে স্বীকৃত আলেম ওলামা ও ইমাম সহ সমাজের সব স্তরের মানুষদের ঐক্যবদ্ধ প্রয়াস । তিনি বলেন , ক্ষুধা ও দারিদ্র মুক্ত বাংলাদেশ গঠনের যে স্বপ্ন দেখেছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সেই স্বপ্ন এখন বাস্তবায়ন সম্ভব হয়েছে। বর্তমান বাস্তবতার আলোকে এখন আলেম ওলামাদের সচেতনতার পরিচয় দিতে হবে । যেহেতু মধ্যযুগে মসজিদ কেন্দ্রীক মাদ্রাসা গুলোতে পাঠ নিয়ে মুসলনরা গনিত জ্যোর্তিবিদ্যায় ব্যপক অবদান রেখেছিলেন এখন সেই সুযোগ এসেছে । এখন একজন মাদ্রাসা ছাত্র উপযুক্ত শিক্ষা নিয়ে বিসিএস ক্যাডার হতে পারে। যে সুযোগ আগে ছিলনা , তাই মাদ্রাসা থেকে শিক্ষা নিয়ে এখন শুধু একজন মুসলমানই নয় সুদক্ষ মানুষ হয়ে বের হয়ে আসতে হবে ।
সমাবেশে অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন , র‌্যাব-১২ এর কমান্ডিং অফিসার কর্নেল খায়রুল বাশার , বগুড়া জামিল মাদ্রাসার মুহাদ্দিস মাওঃ আব্দুল হক, মাওঃ আব্দুল কাদের, বগুড়া জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মজিবর রহমান মজনু, সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল ইসলাম রিপু, মুক্তিযোদ্ধা রুহুল আমিন বাবলু, বগুড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহমুমুদুল আলম নয়ন প্রমুখ।
এর আগে অরিরিক্ত আইজিপি ও র‌্যাব প্রধান ড, বেনজির আহম্মেদ সকালে সরকারী আজিজুল হক কলেজের পুরাতন ভবনের উচ্চ মাধ্যমিক মাঠে প্রধান অতিথি হিসাবে সাইকেল র‌্যালীর উদ্ধোধন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *