বগুড়ার শেরপুরে নিখোঁজের ৩দিন পর নদী থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার ,স্ত্রী আটক

বগুড়া প্রতিনিধি।।
বগুড়ার শেরপুরে নিখোঁজের ৩ দিন পর স্থানীয় নদী থেকে শহিদুল ইসলাম (৩২)নামের এক যুবকের লাশ উদ্ধার হয়েছে ।পুলিশ নিহতের স্ত্রীকে আক করেছে।
বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার সুত্রাপুর এলাকার বাঙ্গালী নদী থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায় পুলিশ। নিহত শহিদুল স্থানীয় সুত্রাপুর গ্রামের মৃত জালাল উদ্দিনের ছেলে।পুলিশ ও স্থানীয়দের সূত্রে জানা গেছে, নিহত শহিদুল গত ৬ জানুয়ারী (সোমবার) সন্ধ্যার পর বাড়ীতে থাকবস্থায় তার স্ত্রী সালমা খাতুন নদীর ঘাট থেকে শহিদুলকে পানি আনতে বলেন। এর পর পানি আনতে গিয়ে শহিদুল আর বাড়ি ফিরে আসেনি।সূত্র আরো জানায় , শাহীন নামের স্থানীয় এক যুবকের সাথে নিহত শহিদুলের স্ত্রী সালমা বেগমের দীর্ঘদিন যাবত পরকীয়া সম্পর্ক চলে আসছিল । বিষয়টি ছিল এলাকায় এক রকম ওপেন সিক্রেট । শহিদুল ও সালমা দম্পতির একটি ছেলে ও একটি মেয়ে সন্তান রয়েছে।
এদিকে গত কয়েক মাস আগে শাহীন শহিদুলের স্ত্রী সালমাকে ভাগিয়ে নিয়ে ঢাকায় চলে যায়। বেশ কিছুদিন পরে স্থানীয় লোকজনের মধ্যস্থতায় শহিদুল তার স্ত্রী সালমাকে ফিরিয়ে নিয়ে আসে এবং পুনরায় দাম্পত্য জীবন শুরু করে। অভিযোগ রয়েছে । মাঝে মধ্যই শাহীন গোপনে এসে সালমার সাথে মেলামেশা করে যেত । এ ঘটনার এক পর্যায়ে গত সোমবার উল্লেখিত ঘটনা ঘটে।
এ বিষয়ে শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি সার্বিক) হুমায়ুন কবীর এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন , পরকিয়া ঘটনার জের নিয়ে পরিকল্পিত ভাবে এ হত্যাকান্ড সংঘটিত হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে। নিহতের লাশ উদ্ধার করে বগুড়া শজিমেক কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রীকে আটক করেছে পুলিশ। ঘটনার পর পর শেরপুর-ধুনট সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজী উর রহমান পিপিএম ঘটনাস্থলে যান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *