শেরপুর উপজেলা প্রশাসনের অভিযানে রাজস্ব আদায় ৫ লক্ষ ৬৫ হাজার ৬৫০ টাকা

আবু বকর সিদ্দিক:
বগুড়ার শেরপুর উপজেলা উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট মো. লিয়াকত আলী সেখ ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) আরফাত হোসেনের নেতৃত্বে শুধুমাত্র ২০১৯ সালে ১শ ২১ টি ভ্রাম্যামন অভিযান চালিয়ে ২শ ৮৮ টি মামলা বিপরীতে ৫ লাখ ৬৫ হাজার ৬ শত ৫০ টাকা রাজস্ব আদায় করেছে উপজেলা প্রশাসন।

উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা মো. লিয়াকত আলী সেখ দৈনিক দৃষ্টি প্রতিদিনকে বলেন, ফুটপাত দখল,কোচিং বানিজ্য,বাল্য বিবাহ, নিরাপদ সড়ক নিশ্চিত করণ, মাদক নির্মূল, বাজার মনিটরিং ও ভোক্তা অধিকার নিশ্চিত করার লক্ষে ভ্রাম্যমান আদালত অব্যাহত থাকবে।

জানা গেছে, বগুড়া জেলার শেরপুর উপজেলায় ২০১৯ সালে শেরপুর থানা পুলিশের সহযোগিতায় জানুয়ারী থেকে ডিসেম্বর হিসেবে অনুযায়ী ১শ ২১টি ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে শেরপুর উপজেলা ম্যাজিস্ট্রেট। এর মধ্যে বাল্য বিবাহ নিরোধ আইনে ৩৮ মামলায় ৩৩ হাজার , মৎসরক্ষা ও সংরক্ষন আইনে ২ টি মামলায় ৪ হাজার ,বালু মহল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইনে দুটি মামলায় ৫৫ হাজার, ভোক্তা অধিকার আইনে ২৯টি মামলার মাধ্যমে ১ লাখ ৩০ হাজার, ধুমপান ও তামাকজাতদ্রব্য ব্যবহার নিয়ন্ত্রন আইনে ৭৮ টি মামলায় ২৮ হাজার ৭ শত, ১৮৬০ সালের আইনের দন্ডবিধির বিভিন্ন ধারায় ৩১ টি মামলায় ১২ হাজার ৫ শত ৫০, ঔষধ (ড্রাগ) আইনে ২৪ টি মামলায় ৪৮ হাজার, করাতকল(লাইসেন্স) বিধিমালায় ১৮টি মামলায় ৪৮ হাজার, পন্যে পাটজাত মোড়ক আইনে ৫৮ টি মামলায় ১ লাখ ৩৭ হাজার ৮ শত,
মোটরযান অধ্যাদেশ আইনে ১৬টি মামলায় ৬ হাজার, রাজনৈতিক দল ও প্রার্থীর আচরণ বিধিমালায় ২ হাজার ৯শত, , কৃষিপন্য বাজার নিয়ন্ত্রন আইনে ১ টি মামলায় ১ শত, পশু নির্যাতন আইনে ১টি মামলায় ৫০, পৌরসভা আইনে ১টি মামলায় ১৫০, প্রকাশ্যে জুয়া আইনে ১টি মামলায় ১ শত, ওজন ও পরিমাপের মান অধ্যাদেশ আইনে ১টি মামলায় ১ শত, মৎস ও পশু খাদ্য আইনে ২টি মামলায় ৯ হাজার এবং বাংলাদেশ গ্যাস আইনে ১ টি মামলায় ৫০ হাজার টাকা আদায় করা হয়েছে। এছাড়ও ৩ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *