ধুনট পৌর এলাকার ভগ্নদশা সড়কে ঝুঁকি নিয়েই চলছে যানবাহন

ইমরান হোসেন ইমন, ধুনট (বগুড়া) থেকে:
বগুড়ার ধুনট উপজেলায় দীর্ঘদিন যাবত সংস্কার না করায় পৌর এলাকার জনগুরুত্বপূর্ণ চারটি প্রধান পাকা সড়ক এখন ভগ্নদশায় পরিনত হয়েছে। এতে ওই সকল সড়কে জনসাধারনের চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।
জানাগেছে, বগুড়া সড়ক ও জনপদ বিভাগ (সওজ) প্রায় ১০ বছর আগে ধুনট পৌর এলাকার প্রধান সড়কগুলোর মধ্যে ধুনট-শেরপুর সড়ক, ধুনট-সোনামুখি সড়ক, ধুনট-শেরপুর সড়ক ও ধুনট-গোসাইবাড়ি পাকা সড়ক নির্মান করে। কিন্তু পরবর্তীতে সড়ক ও জনপদ বিভাগ ওই সকল সড়কগুলো সংস্কার করলেও পৌর এলাকার অভ্যন্তরীন প্রায় ৮ কিলোমিটার প্রধান সড়ক রক্ষনা বেক্ষন ও সংস্কারের অভাবে চলাচলোর অযোগ্য হয়ে পড়েছে। তন্মধ্যে ধুনট গোসাইবাড়ি সড়কের ধুনট বাজার থেকে চান্দারপাড়া পর্যন্ত ৪ কিলোমিটার, ধুনট বাজার থেকে বাইপাস পর্যন্ত ১ কিলোমিটার, ধুনট জিরোপয়েন্ট থেকে হুকুমআলী বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত ২ কিলোমিটার এবং ধুনট উপজেলা পরিষদ থেকে ধুনট টিএনটি মোড় পর্যন্ত আধা কিলোমিটার সড়কের বিভিন্ন স্থানে কার্পেটিং উঠে গিয়ে খানা-খন্দে পরিনত হয়েছে। একারনে ওই সকল সড়কে রিকসা-ভ্যান, সিএনজি ও বাস-ট্রাক সহ বিভিন্ন যানবাহন ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে।
ধুনট-শেরপুর সড়কের সিএনজি চালক ফরহাদ হোসেন বলেন, এই সড়কের ধুনট বাজার থেকে হুকুমআলী বাসষ্ট্যান্ড পর্যন্ত প্রায় সম্পূর্ণ পাকা সড়কই চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। এসড়কের বিভিন্ন স্থানে গর্ত সৃষ্টি হওয়ায় ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে। এছাড়া পৌর এলাকার আরো কয়েকটি সড়কও বেহাল অবস্থায় পরিনত হয়েছে। তাই পৌর এলাকার অভ্যন্তরীন জনগুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলো দ্রুত সংস্কারের দাবি জানান তিনি।
ধুনট উপজেলা প্রকৌশল কর্মকর্তা জহুরুল ইসলাম জানান, ধুনট পৌর এলাকার সড়কগুলো অনেক বছর আগে বগুড়া সড়ক ও জনপদ বিভাগ নির্মান করেছে। একারনে প্রকৌশল অধিদপ্তর থেকে সড়কগুলো মেরামত করা সম্ভব হচ্ছে না।
বগুড়া সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আশরাফুজ্জামান জানান, পৌর এলাকায় সড়কগুলো নির্মান করা হলেও রক্ষনা-বেক্ষন ও সংস্কারের দায়িত্ব পৌরসভার। তাই পৌরসভা কর্তৃপক্ষ সড়কগুলো সংস্কার করবেন।
এবিষয়ে ধুনট পৌরসভার মেয়র এজিএম বাদশাহ বলেন, বগুড়া সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্মিত পাকা সড়কগুলো পৌরসভা থেকে সংস্কার করা হয়। সম্প্রতি ধুনট বাজার থেকে ধুনট থানা পর্যন্ত পাকা সড়কটি পৌরসভা থেকে পুনঃনির্মান করা হয়েছে। পরবর্তীতে বরাদ্দ পেলে অন্য পাকা সড়কগুলো পুনঃনির্মান করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *