বগুড়ায় সদর সহ জেলার ৩টি মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স’র উদ্ভোধন করলেন মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী

ম,রফিক,বগুড়া থেকে ।।
বগুড়ায় নব নির্মিত আধুনিক মানের সদর মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লে´ এর উদ্ভোধন করলেন,মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের মন্ত্রী আ,ক,ম,মোজাম্মেল হক এমপি ।  বুধবার বিকালে শহরের শহরের চারমাথা এলাকায় আনুষ্ঠানিক ভাবে কমপ্লেক্স ভবনের ফলক উম্মোচন করেন তিনি । একই সময়ে গাবতলী ও আদমদীঘি উপজেলার ২টি মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের উদ্ভোধন করেন মন্ত্রী ।
এসময় উদ্ভোধন উপলক্ষে ভবনের তৃতীয় তলায় আয়োজিত এক মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসাবে মুক্তিযোদ্ধদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের মন্ত্রী আ,ক,ম,মোজাম্মেল হক এমপি।
কুরান পাঠের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের শুরু করা হয় । এসময় এক মিনিট নিরবে দাঁড়িয়ে জাতির জনক ও শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করা হয়।
এতে বগুড়া জেলা প্রশাসক মুহাঃ ফয়েজ আহম্মেদ এর সভাপতিত্বে মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, গাবতলী-শাহজাহানপুর নির্বাচনী এলাকার সংসদ সদস্য মুহাঃ রেজাউল করিম বাবুল, বগুড়া পুলিশ সুপারের প্রতিনিধি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল)সনাতন চক্রবর্তী,জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ড,মোকবুল হোসেন,জেলা আওয়ামী লীগের সহঃ সভাপতি টি জামান নিকেতা, সাধারন সম্পাদক রাগেবুল হোসেন রিপু প্রমুখ ।
এর আগে অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর(এলজিইডি)এর মুহা আব্দুল হাকিম। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ে স্মৃতিচারন মুলক বক্তব্য রাখেন জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মুহাঃ রুহুল আমিন। এসময় মঞ্চে উপবিষ্ট ছিলেন,সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মাহফুজুল হক রাজ । আরো উপস্থিত ছিলেন সদর ইউএনও সহ বিভিন্ন উপজেলার ইউএনও এবং বগুড়া সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (সার্বিক) এসএম বদিউজ্জামান সহ বিভিন্ন ৩শতাধিক বীর মুক্তি যোদ্ধা। অনুষ্ঠানে শেষে মন্ত্রী সড়ক পথে নওগাঁর উদ্দেশ্য রওনা হয়ে যান।
এর আগে মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের মন্ত্রী আ,ক,ম,মোজাম্মেল হক এমপি দুপুরে ২টায় সড়ক পথে বগুড়া সার্কিট হাউজে এসে পৌছেন । সেখানে পুলিশের এক চৌকস দল তাকে গার্ড অব অনার প্রদান করে। তার সাথে ছিলেন বগুড়া জেলা প্রশাসক মুহা ফয়েজ আহম্মদ, বগুড়ার পুলিশ সুপার মুহা আলী আশরাফ ভূঞ্াঁ পিপিএম(বার)। এসময় মন্ত্রী সার্কিট হাউজে আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীদের সাথে সংক্ষিপ্ত মত বিনিময় করেন।
উল্লেখ্য, বাংলাদেশ সরকারের অর্থায়নে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর(এলজিইডি)এই ভবন নির্মান কাজ সমপন্য করে। বগুড়া সদরের ৩তলা বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধাকমপ্লেক্স এর নির্মান ব্যায় ছিল ১কোটি ৯৩লক্ষ ৮৫হাজার ২১১টাকা ,গাবতলী উপজেলা মুক্তিযোদ্ধাকমপ্লেক্স এর নির্মান ব্যায় ধরা হয়ে ছিল ১কোটি ৮১লাখ ৬৯হাজার ৬২৪টাকা এবং আদমদীঘি উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স এর নির্মান ব্যায় ধরা হয়েছিল ২কোটি ৩৪লক্ষ১৩হাজার ৩২টাকা । গত প্রায় ২বছরে এ ৩টি কমপ্লেক্স ভবনের নির্মানকাজ সমাপ্ত করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *