খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরিস্থিতি জানতে দেয়া হচ্ছে না : রিজভী

দলের চেয়ারপারসন কারাবন্দি বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরিস্থিতি নিয়ে কিছুই জানতে দেয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী। মঙ্গলবার দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

রিজভী বলেন, ‘গণমানুষের প্রাণপ্রিয় নেত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে বিনা অপরাধে আজ ৬৮৫ দিন যাবত বন্দি করে নির্যাতন করা হচ্ছে। তিনি গুরুতর অসুস্থ হলেও সুচিকিৎসা দেয়া হচ্ছে না। অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল তার সুচিকিৎসা ও ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানালেও তাতে কর্ণপাত করছে না ক্রোধ পরায়ন ও কলহপ্রিয় প্রধানমন্ত্রী।’
তিনি বলেন, বেগম জিয়ার ন্যায্য জামিনে বাধা দেয়া হচ্ছে। এখন তার ওপর চলছে রীতিমত চিকিৎসা সন্ত্রাস। তিনি কেমন আছেন, তাকে নিয়ে কী করা হচ্ছে কিছুই জানতে দেয়া হচ্ছে না। আমরা আশঙ্কায় আছি দেশনেত্রীকে নিয়ে। তার অসুস্থতা পূর্বের চেয়ে ভিন্ন ও গভীর। আমরা চরম উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠায় আছি। আসলে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও নিয়মিত ওষুধ সেবনে কোনো কারসাজি করা হচ্ছে কি না?

রিজভী বলেন, ‘সরকারপ্রধানের সরাসরি হস্তক্ষেপে পিজি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের মনগড়া স্বাস্থ্য প্রতিবেদনে জামিন বন্ধ করে দেয়ার পর আমরা আশঙ্কা করছি, দেশনেত্রীকে প্রাণনাশ করার ভয়ঙ্কার কোনো নীলনকশা বাস্তবায়ন করা হচ্ছে কি না, কারণ তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. শামীম ও ডা. মামুনকে এখন আর দেখা করতে দেয়া হয় না।’

বিএনপির এ নেতা বলেন, ‘আমরা অবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. শামীম ও ডা. মামুনকে তার সাথে সাক্ষাতের সুযোগ দেয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। আমি এই মুহূর্তে দেশনেত্রীর নিঃশর্ত মুক্তির দাবি করছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *