ক্ষোভে ফুসছে শেরপুর উপজেলার মিল চাতাল মালিক রা, অনিয়মের অভিযোগ খাদ্য কর্মকর্তা বিরুদ্ধে

স্টাফরিপোর্টার: চলতি ২০১৯ / ২০ আমন মৌসুমে মিল ভিত্তিক সিদ্ধ চালের বিভাজনে শেরপুর উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা বিরুদ্ধে কৌশলে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। এছাড়াও প্রায় ২শত মিল চাতালের লাইসেন্স সাময়িক অবৈধ ঘোষনা করায় মিল চাতাল মালিকদের ভিতরে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। ফুসে উঠেছে ব্যবসায়িরা। এ ঘটনা চুড়ান্ত রুপ নিলে যে কোন সময় কর্মসুচি ঘোষনা করতে পারে মিল মালিক সমিতি কর্তৃপক্ষ। অপর দিকে মিলের অনিয়ম ও লাইসেন্সের শর্ত সঠিক না থাকায় প্রায় দুইশত মিলের বরাদ্ধ বাতিল করার দাবি করেছে উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা।
জানাগেছে,চলতি আমন মৌসুমে সিদ্ধ চাল ক্রয়ে বয়লার চাতাল, স্টীপিং হাউজের বিবরন, মিলের মটর , গুদামের ও মিলের মিলিং ক্ষমতা বিবরন একই মিল চাতালে নামে একাধিক লাইসেন্স থাকার বিষয়গুলো বিচার বিশ্লেষন করে এবছরে বগুড়া শেরপুর উপজেলা মিল চাতাল মালিকদের বরাদ্ধ দেয়া হয়েছে বলে দাবি করেছে উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা সেকেন্দার রবিউল ইসলাম।
এদিকে বাদ পড়ার তালিকা জানতে চাইলে তিনি তথ্য না দিয়ে কৌশলে বলেন এ তালিকা আমাদের কাছে নেই, এটা বগুড়া জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রকের সাথে যোগাযোগ করে দেখতে পারেন।
অথচ বিশ^স্ত সুত্রে জানাগেছে জেলাা খাদ্য নিয়ন্ত্রক এস এম সাইফুল ইসলাম স্বাক্ষরিত শেরপুর উপজেলার ৫১৭ টি মিল চাতাল মালিক দের মধ্যে থেকে ৩৫৬ মিল চাতাল, সেমি অটো রাইস মিল এর নামের বিপরীতে ৪ হাজার ৯শত ৯৩ টন সিদ্ধ চাল বরাদ্ধ দেওয়া হয়েছে।অভিযোগ উঠেছে, এ ৩৫৬জন বরাদ্ধ পাওয়া মিল মালিকদের মধ্যে প্রায় ৬৫ জনের নামে একাধিক নামে বরাদ্ধ দেওয়া হয়েছে। সেই সাথে সরকারের শর্তানুযায়ী মিলের ধারন ক্ষমতা ও অন্যন্য বিষয়ে বিশ্লেষন করে বরাদ্ধ দেয়া হয়নি। বরং অনিয়মের বরাদ্ধ দেয়া হয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন অনেকেই। বরাদ্ধ না পেয়ে বাদপড়া অটো মিল চাতাল মালিকরা বলছেগোপন সখ্যতার বিনিময়ে ছাড়া সম্ভব নয়।কেননা অনেক যোগ্য সম্পন্ন মিল সেমি অটোমিল মালিকরা এ বরাদ্ধ থেকে বাদ পড়েছে। এদিকে একই ব্যক্তির এক টি মিল চাতালের বিপরীতে ৩ থেকে ৪ টি লাইসেন্স নিয়ে সেই সকল মিলের নামে বরাদ্ধ পাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে খাদ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোছাম্মাত নাজমারা খানম এর সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি। (চলমান পর্ব ১)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *