তালায় ব্রোকলি চাষে সফলতা পাওয়ায় চাষে আগ্রহী হয়েছেন চাষিরা

আজমল হোসেন জুয়েল, তালা প্রতিনিধি ঃ সাতক্ষীরার তালা উপজেলায় এ বছর নতুন জাতের শীতকালীন সবজি ব্রোকলি চাষ হচ্ছে। আবাদে ফুলকপির তুলনায় খরচ সাশ্রয়ী হওয়ায় ব্রোকলি চাষ করে লাভবান হচ্ছেন কৃষকরা।

ব্রোকলি আকারে ফুলকপির মত হলেও ফুলগুলো সাদার পরিবর্তে পাতার রঙের মত সবুজ। স্বাদে ও গুনে অসাধারন। প্রতি পিস ব্রোকলি ওজনে ৭শ গ্রাম থেকে ১ কেজি পর্যন্ত হয়। বর্তমানে বাজারে প্রতি পিস ব্রোকলি ১৫ থেকে ২০ টাকা করে বিক্রি হচ্ছে। এ বছর ফলনও বেশ ভালো হয়েছে। তালা উপজেলার পাটকেলঘাটা, নগরঘাটা, মিঠাবাড়ী, আলিপুর, ধানদিয়া, কৃষ্ণনগর, কাটাখালী ও ফুলবাড়ি গ্রামে এ বছর কৃষকরা এই সবজির চাষ করেছে। সাধারণ ফুলকপির চেয়ে আবাদে খরচ কম আবার বেশি দামে বিক্রি হওয়ায় এ নতুন সবজি চাষে ঝুঁকছেন এলাকার কৃষকরা।

আলিপুর গ্রামের কৃষক বিজন কুমার জানান, স্থানীয় বেসরকারি সংস্থা উন্নয়ন প্রচেষ্টার মাধ্যমে ব্রোকলি বীজ সংগ্রহ করে ৮ শতক জমিতে ব্রোকলি রোপণ করেছি। এতে খরচ হয়েছে ৬ হাজার টাকা। ইতোমধ্যে ২৫ হাজার টাকার ব্রোকলি বিক্রি হয়েছে। প্রতি পিচ ৩ থেকে ৪শ গ্রামের ব্রোকলি ২০ থেকে ২৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে বলে তিনি জানান।

ধানদিয়া গ্রামের কৃষক মাসুদ হোসেন বলেন, প্রথমে নতুন জাতের সবজি চাষ করতে সাহস হচ্ছিল না এবছর চাষ করে ভাল লাভ হয়েছে। নতুন জাতের সবজি হওয়ায় বাজারে চাহিদা কিছুটা কম থাকলেও অনেকেই খেতে এসে ব্রোকলি কিনছেন।
তালা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হাজিরা খাতুন জানান, ইউরোপিয়ান ফসল বারবারা জাতের ব্রোকলি সাতক্ষীরা জেলায় এবার তৃতীয়বার চাষ হচ্ছে। এ সবজি চাষ করে অল্প সময়ে অধিক লাভবান হওয়া যায়।

এছাড়া এতে অধিক পরিমাণ পুষ্টিগুণ রয়েছে যা ফুলকপির চেয়ে অনেকগুণ বেশি। এতে ভিটামিন এ, ভিটামিন সি ও ভিটামিন কে পাওয়া যায়। সাদা ফুলকপিতে ভিটামিন এ নাই। ব্রোকলিতে ভিটামিন এ থাকায় এ সবজি খেলে চোখের দৃষ্টি শক্তি বাড়ে বলে তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *