ঠাকুরগাঁওয়ে নকল সনদে চাকুরি অভিযোগে প্রভাষক বরখাস্ত

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রুহিয়া ডিগ্রি কলেজের এইচএসসি(বিএম) ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের এক প্রভাষকের বিরুদ্ধে নিবন্ধনের নকল সার্টিফিকেট দিয়ে চাকুরি করার অভিযোগে ওই প্রভাষককে বরখাস্ত করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

অভিযুক্ত শিক্ষক আতিকুর রহমানের বিরুদ্ধে থানায় মামলা আনয়ন করার জন্য গেল বছরের ২৯ সেপ্টেম্বর কলেজ কর্তৃপক্ষকে চিঠি দেয় এনটিআরসিএ’র সহকারী পরিচালক তাজুল ইসলাম। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কলেজের এক শিক্ষক বলেন গত কয়েক বছরে তার পিছনে সরকারের ১৭ লক্ষ টাকা গোচ্ছা গেছে।

জানা যায়, ২০০৯ সালে অনুষ্ঠিত ৫ম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় নিজেকে উত্তীর্ণ দেখিয়ে ২০১২ সালের নভেম্বর মাসে সদর উপজেলার রুহিয়া ডিগ্রি কলেজের ব্যবসায় শিক্ষা (বিএম) বিভাগের ইংরেজি প্রভাষক পদে নিয়োগ প্রাপ্ত হন আতিকুর রহমান । পরে তার শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার সনদ পত্র জাল ও ভুয়া বলে প্রমানিত হয়। যার প্রেক্ষিতে এনটিআরসিএ’র সহকারী পরিচালক তাজুল ইসলাম ২০১৮ সালের ২৬ নভেম্বর স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে অভিযুক্ত ঐ শিক্ষকের সনদ পত্র যাচাইয়ের তথ্য নিশ্চিত করে বলা হয় যে, আতিকুর রহমানের সনদটি সঠিক নয়। সে যে রোল নম্বরটি ব্যবহার করেছেন সেটা অন্য ব্যক্তির। ওই ব্যক্তির মো: মিজানুর রহমান পিতা: মৃত-আবুল হাসিম মাস্টার।

এই ঘটনাকে কেন্দ্র কলেজ কর্তৃপক্ষ ৭ দিনের মধ্যে ব্যাখ্যা চেয়ে আতিকুর রহমানকে নোটিশ দিলেও তার কোনো সন্তোষজনক জবাব না পাওয়ায় কলেজ কমিটি তাকে সাময়িক বরখাস্ত করে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক আতিকুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি কথা বলতে রাজী হননি।
রুহিয়া ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ মামুনুর রশিদ জানান, এনটিআরসিএ’র চিঠি পেয়েছি। ব্যক্তির দায় অধ্যক্ষ কিংবা প্রতিষ্ঠান বহন করবে না।

এ ব্যাপারে রুহিয়া থানার ওসি চিত্তরঞ্জন রায় বলেন, থানায় এধরণের কোন অভিযোগ আসেনি, বিষয়টি শুনেছি। অভিযোগ দিলে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *