শেরপুরে “আশ্রয়নের অধিকার-শেখ হাসিনার উপহার” উদ্বোধনে সাজ সাজ রব

স্টাফ রিপোর্টার : বগুড়ার শেরপুরে অপেক্ষার প্রহর গুনছে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পাকা ঘর পাবেন যে সকল গৃহহীন পরিবারগুলো। বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়ানো মানুষগুলি জায়গা সহ নতুন ঘর পাবে এমন আনন্দে অনেকেই আত্মহারা। খুশিতে আত্মহারা উপজেলা প্রশাসনও । পাশাপাশি সুবিধাভোগীদের প্রাপ্য বুঝিয়ে দিতে ব্যস্ততার সীমা নেই যেন তাদের।
মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে শেরপুরের ভূমি ও গৃহহীন ১৬৩ পরিবারের জন্য ঘর তৈরির কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায় এসব ভূমি ও ঘর উপকারভোগীদের বুঝিয়ে দেয়ার কার্যক্রম শীঘ্রই শেষ করা হবে।
সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, দ্রুত সময়ের মধ্যে ঘর নির্মাণ সম্পন্ন করার জন্য বিরামহীন কাজ করে যাচ্ছে উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। শীঘ্রই ঘরগুলো হস্তান্তর করা হবে উপকারভোগীদের মাঝে। “আশ্রয়নের অধিকার-শেখ হাসিনার উপহার” এই স্লোগান নিয়ে আশ্রয়ন প্রকল্পের আওতায় শেরপুর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে ১৬৩টি ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে। এর মধ্যে বেশিরভাগ ঘরের নির্মাণ কাজ প্রায় সম্পন্ন হয়েছে। অবশিষ্ট ঘরগুলো খুব অল্প সময়ের মধ্যে নির্মাণ কাজ শেষ হবে বলে জানিয়েছেন উপজেলা প্রশাসন।
উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, এই প্রকল্পের আওতায় ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা ব্যয়ে প্রতিটি বাড়ি নির্মাণ করা হবে। প্রতিটি ঘরে রয়েছে দুটি বেড রুম, টয়লেট, রান্নাঘর ও একটি বারান্দা। ঘর ও আশপাশের জমি মিলিয়ে দুই শতক জমি দেওয়া হবে উপকারভোগী প্রতিটি পরিবারকে। টিনসেডের এই ঘরে একটি পরিবার স্বাচ্ছন্দে বসবাস করতে পারবে।
শেরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. লিয়াকত আলী শেখ জানান, আমরা সরকারের খাস জমিতে ভূমি ও গৃহহীন হতদরিদ্রদের জন্য ১৬৩টি ঘর নির্মাণ করছি। কাজের মান যেন ঠিক থাকে সেজন্য সার্বক্ষণিক তদারকি করা হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, ঘর প্রদানের জন্য উপকারভোগী নির্বাচনের ক্ষেত্রেও আমরা সঠিকভাবে যাচাই বাছাই করেছি। যারা প্রকৃত ভূমিহীন তারাই এই সুবিধার আওতায় এসেছেন। খুব শীঘ্রই তাদের মাঝে ঘরের দলিল ও চাবি হস্তান্তর করা হবে।
শেরপুর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শামছুন্নাহার শিউলি জানিয়েছেন আগামী ২৩ জানুয়ারি সকাল দশটায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে একযোগে উদ্বোধন করবেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শেরপুর উপজেলা প্রশাসনের সকল কর্মকর্তার সঙ্গে উপস্থিত থাকবেন শেরপুর ধনুট নির্বাচনী এলাকার সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব হবিবর রহমান এমপি, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ বগুড়া জেলা শাখার সভাপতি ও শেরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মজিবুর রহমান মজনু, শেরপুর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানগন এবং টাস্কফোর্স কমিটি ও পিআইসি এর সকল সদস্যবৃন্দ, উপজেলা পরিষদের সকল কর্মকর্তা, বীর মুক্তিযোদ্ধা, গণমাধ্যম কর্মী, স্থানীয় বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ এবং সুবিধাভোগী গণ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *