জেলাজুড়ে ঘন কুয়াশা দুর্ভোগে নিম্নআয়ের মানুষ

জিয়াউদ্দিন লিটন: স্টাফ রিপোর্টার :  বগুড়া জেলা জুড়ে আজ ১৮ জানুয়ারি সোমবার ভারী কুয়াশায় ঢাকা, অনেক বেলা পর্যন্ত ঘন কুয়াশায় সমস্ত আকাশ ঢাকা থাকে। ধোঁয়াশা হয়ে রয়েছে জেলার সমস্ত জায়গা জুড়ে। নেই কোথাও সূর্যের দেখা। বগুড়া জেলায় তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস থাকায় ঘন কুয়াশায় আচ্ছন্ন হওয়া রাস্তায় যানবহন চলাচলের সময় প্রতিটি গাড়ির হেডলাইট জ্বালিয়ে রাস্তা চলাচল করতে হচ্ছে।
তাও মাঝেমধ্যে কাঁচের গ্লাস মুছে দিয়ে যানবাহন নিয়ে চলাচল করছে গাড়িচালকেরা। রাস্তাঘাট দিয়ে চলার সময় কিছুদুর পথে তাকালে আর কিছু দেখা যায় না। মানুষ থাকলেও মনে হয় নেই কোন মানুষ। ছায়া ছায়া ভাব মানুষের মত, কুয়াশায় ভোর থেকে কুয়াশার সে টাপুর টুপুর শব্দ কানে জাগে যেদিকে তাকানো যায় সেদিকেই মনে হয় ধোঁয়া আর ধোঁয়া। মাঘের শীতের শুরুতেই মনে হচ্ছে আজ এ বছরের সবথেকে বেশি কুয়াশায় আচ্ছন্ন। ঘন কুয়াশায় এক কিলোমিটার রাস্তা দেখা তো দূরের কথা ২০০ মিটার রাস্তাও দেখা যাচ্ছে না।
প্রতিটি বৃক্ষের সবুজ পাতা গুলো কুয়াশায় মোড়ানো। ভেজা সেই পাতার ওপরে চোখ পড়লে মনে হচ্ছে কোন পুকুরের পানিতে জেনো ডুবিয়ে তুলে রাখা হয়েছে, কিন্তু তা নয়। এছাড়া মাঝ রাত থেকেই ঘন কুয়াশায় ইতিহাসে চারিদিক। সেই ধোঁয়া কুয়াশা শিশির আকারে নেমে আসে বৃক্ষের পাতায়। বগুড়া জেলার কুয়াশায় মোড়ানো চারিদিক। গত তিনদিন থেকে শুরু হয়েছে এই কুয়াশা, শীতের সকালে আজও সূর্যের নেই কোনো দেখা। ঘন কুয়াশা এবং শৈত্যপ্রবাহে দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে জীবন জানালেন একজন মানুষ শমসের আলী জুয়েল।
কুয়াশার আড়াল থেকে যদিও বা সূর্যের দেখা মিলে ১১/১২টায় । উঁকি দিয়ে আসেন ওপর আকাশে সেই ছোট্ট একটি সূর্য যার নেই কোন উত্তাপ । যেন ঘন কুয়াশায় কুঁকড়ে আছে আশেপাশের বৃক্ষ গুলো। এলাকার জ্ঞানী গুনী ব্যক্তিরা জানান এ রকম আবহাওয়া থাকায় সর্দি-কাশির প্রকোপ বাড়তে পারে। কুয়াশায় আচ্ছন্ন ঘেরা অবস্থায় কুয়াশার গুড়ি গুড়ি, বিন্দু বিন্দু কনা দেখা যায় ঘাসের ডগায় । দুপুর মুহূর্তে বেলা বাড়ার সাথে সাথে আস্তে আস্তে শেষে হয়ে যায় শিশিরকণা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *