নিয়মিত বাজার মনিটরিং চললেও সবজি বিক্রেতারা মানছেন না সরকার নির্ধারিত মূল্য

জিয়াউদ্দিন লিটন,স্টাফ রিপোর্টার:
বগুড়া শেরপুরে উপজেলা প্রশাসন বাজার নিয়ন্ত্রনের পদক্ষেপ হিসেবে প্রতিদিনই বাজার মনিটরিং ও মোবাইলকোর্ট পরিচালনা করছেন কিন্তু সরকারি নীতিমালার তোয়াক্কা করছে না ব্যবসায়ীরা। প্রতিটি সবজির দাম হু হু করে বাড়ছে। খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে হিমাগার থেকেই সরকার নির্ধারিত দামের চেয়ে বেশি দামে আলু বিক্রয় হচ্ছে।
সরকার খুচরা বাজারে আলুর দাম ৩০ টাকা নির্ধারণ করে দিলেও এখনো খুচরা বাজারে প্রতি কেজি আলু ৪৫ থেকে ৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এতে মধ্যবিত্ত-নিম্নবিত্ত ও দরিদ্রের মধ্যে চরম অসন্তোষ শুরু হয়েছে। আয়ের সাথে ব্যয়ের মিল না থাকায় সাধারণ মানুষ চরম বিপাকে পড়েছে। তাদের মধ্যে চরম ক্ষোভ ও হতাশা বিরাজ করছে। সংসার কিভাবে চালাবে এ নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছে।
শেরপুরের বাজারগুলো ঘুরে দেখা যায়, আলুর দাম ৩০ টাকা লেখা থাকলেও ৪৫ থেকে ৫০ টাকায় বিক্রির কারণ জানতে চাইলে খুচরা ব্যবসায়ী মন্টু মিয়া জানান, আমরা পাইকারী ৪২-৪৫ টাকায় আলু কিনে আনছি আর বিক্রি করছি ৪৫-৫০ টাকায়। সরকার যে দাম বেধে দিয়েছে সেই দামে বিক্রি করলে আমাদের ক্ষতি হবে।

ব্যবসায়ী জাহিদুল জানান, আড়ৎদারের কাছে থেকে আলু কিনে আনতে ৪২/৪৩ টাকা কেজি পড়ে যায় তারপর পরিবহণ খরচ আছে। আমরা তো লস দিতে পারবো না।
নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যাবসায়ী জানায়,পাইকারি আড়ৎদার শাহজামাল, উকিলমিয়া এবং মন্টু মিয়াদের কাছে থেকেই আমাদের কিনতে হয় তারাই বেশি দামে বিক্রি করে এবং বাজার নিয়ন্ত্রন করে। তিনি জানান, সরকার যদি হিমাগারের বড় বড় ব্যবসায়ীদের দাম কমানোর বাধ্যবাধকতা আনলে বাজারে দাম কমে যাবে ।
এদিকে, বর্তমানে বাজারে আলু ছাড়াও সমস্ত জিনিপত্রের দাম বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। পিয়াজ ৮৫ টাকা, কপি ৮০ টাকা, মরিচ ২০০-২৪০ টাকা, বেগুন ৬০ -৭০ টাকা, শসা ৪৫ টাকা, ঢেড়শ ৬০ টাকা, পটল ৭০ টাকা, করলা ৮০ টাকা, লাউ ৪০-৪৫ টাকা, কচু ৩০ টাকা, ফুলকপি ৮০ টাকা কেজি, সিম ১০০ টাকা, টমেটো ১২০ টাকা, গাজর ৮০ টাকা, পালং শাক ৬০ টাকা, লাল শাক ৪০ টাকা, পাটের শাক ৩০ টাকা, দরে বিক্রি হচ্ছে। এতে সাধারন মানুষের মধ্যে নাভিশ্বাস শুরু হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে শেরপুর উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা সেকান্দার রবিউল ইসলামের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে ফোন রিসিভ করেননি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *