এস,এম,হাবিবুল হাসান : সাতক্ষীরায় করোনা সংক্রমণের হার না কমায় চলমান লকডাউন আরো এক সপ্তাহ বৃদ্ধি করা হয়েছে

সীমান্তবর্তীএই জেলায় ।

 

বৃহস্পতিবার (১০ ‍জুন) দুপুরে জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির ভার্চুয়াল সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।শনিবার (১২ জুন) সকাল থেকে বর্ধিত এই লকডাউন কার্যকর হবে। এর আগে গত ৫ জুন ঘোষিত সপ্তাহব্যাপী লকডাউনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামীকাল শুক্রবার মধ্যরাতে।

 

চলমান লকডাউনে জনগণের অবাধ চলাচল নিয়ন্ত্রণে শহরের মোড়ে-মোড়ে ব্যারিকেড দিয়ে চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। রাস্তায় বাঁশ ও চেয়ার টেবিল ফেলে যানবাহন ও মানুষের চলাচল নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছে পুলিশ। জরুরি প্রয়োজনে মানুষ পায়ে হেঁটে যাতায়াত করছেন। তবে বিশেষ জরুরি পরিসেবা লকডাউনের আওতামুক্ত রয়েছে। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে খুলনা ও যশোর থেকে সাতক্ষীরায় প্রবেশের পথ।

 

জেলায় এ কড়া লকডাউনের মধ্যেও গ্রামে-গ্রামে ছড়িয়ে পড়েছে সর্দি, কাশি, জ্বর ও ডায়রিয়ার মতো করোনার নানা উপসর্গ। স্বাস্থ্যবিধি মানাতে হিমশিম খাচ্ছে প্রশাসন। ভোমরা স্থলবন্দরে সীমিত পরিসরে চলছে আমদানী-রপ্তানী কার্যক্রম। তবে ভারতীয় চালক ও হেলপাররা যাতে খোলামেলা ঘুরে বেড়াতে না পারেন সে জন্য পুলিশ ও বিজিবির নজরদারি বৃদ্ধি করা হয়েছে। এছাড়া লকডাউনের মধ্যে দোকানপাট খোলা রাখা, স্বাস্থ্যবিধি না মানাসহ বিভিন্ন অপরাধে জেলার বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

 

গত ২৪ ঘন্টায় ৯৫ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৪৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৫০.৫২ শতাংশ। একই সময়ে করোনার উপসর্গ নিয়ে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দুই নারীসহ ৪ জন মারা গেছেন। এ নিয়ে জেলায় আজ পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হয়েছেন ২ হাজার ১৪৫ জন আর করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন কমপক্ষে ২৪০ জন। ভারিাসটিতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন মোট ৪৯ জন।

 

গত ২৪ঘণ্টায় উপসর্গ মৃতরা হলেন, সাতক্ষীরা সদর উপজেলার পরানদহা গ্রামের রুপবান বিবি (৫৫), একই উপজেলার আখড়াখোলা আমতলা গ্রামের রিজিয়া খাতুন (৩৫), ভোমরা ইউনিয়নের গয়েশপুর গ্রামের রুহুল কুদ্দুস (৫৫) ও শহরের মুন্সিপাড়া এলাকার কামরুজ্জামান (৬৫)।

 

সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসক এস.এম মোস্তফা কামাল জানান, চলমান এই লকডাউন আরো এক সপ্তাহের জন্য বৃদ্ধি করা হয়েছে। যা চলবে আগামী ১৭ জুন রাত ১২ টা পর্যন্ত। তিনি এ সময় জেলাবাসীকে লকডাউনের সকল বিধিনিষেধ মেনে চলার জন্য আহবান জানান।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

By Editor

Leave a Reply