এস,এম,হাবিবুল হাসান :সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দর টানা ৬ দিন বন্ধ থাকার পর অবশেষে পণ্য খালাসের কাজ শুরু হয়েছে।এর ফলে কর্মচাঞ্চল্য ফিরে এসেছে বন্দর ব্যবহারকারীদের মাঝে।

বুধবার (০৭ এপ্রিল) বিকাল ৫ টা থেকে পণ্য খালাসের কাজ শুরু হয় এবং আজ বৃৃৃহস্পতিবার(০৮ এপ্রিল) সকাল থেকে পুরোপুরি ভাবে পণ্যবাহী ট্রাক লোড-আনলোড শুরু করেছে বন্ধর শ্রমিকরা। 

এর আগে মঙ্গলবার (০৬ এপ্রিল) দুপুরে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামালের সম্মেলন কক্ষে বিষয়টি নিরসণের জন্য সিএন্ডএফ নেতাসহ বন্দর সংশ্লিষ্টরা আলোচনায় বসেন। আলোচনা ফলপ্রসূ হলেও বন্দরের প্রশাসনিক জটিলতার কারণে কিছুটা দেরিতে হলেও আবারও শুরু হয়েছে পণ্য খালাসের কাজ।

এদিকে, ভারতের ঘোজাডাঙ্গা এলাকায় অপেক্ষামান দীর্ঘ লাইনে দাড়িয়ে থাকা পণ্যবাহী ট্রাক ভোমরা বন্দরে প্রবেশ করতে শুরু করেছে।

ভোমরা স্থলবন্দর সিএন্ডএফ এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান নাসিম জানান, জেলা প্রশসকের সাথে ফলপ্রসূ আলোচনা হলেও বন্দরের প্রশাসনিক জটিলতার কারণে পণ্যখালাসে বিলম্ব হওয়ার পর অবশেষে বিকাল ৫টা থেকে শুরু হয়েছে সকল প্রকার পণ্য খালাসের কাজ।

তিনি আরো বলেন, ব্যবসায়ীদের দাবী মোতাবেক এখন থেকে লেবার বিল আলাদা করে ঠিকাদারের হাতে না দিয়ে সরকারের রাজস্ব দিয়ে ব্যসায়ীরা আলাদা লেবার নিয়ে পণ্য খালাসের কাজ করতে পারবেন।

ভোমরা শুল্ক স্টেশনের সহকারী কমিশনার আমির মাহমুদ জানান, গত কয়েক দিনের অচল অবস্থার কারণে রাজস্ব আদায়ে বিরাট ক্ষতি হয়েছে এ বন্দরে। স্বাভাবিক অবস্থায় এ বন্দর দিয়ে প্রতিদিন প্রায় ৩ কোটি টাকার রাজস্ব আদায় হতো। শুক্রবার বাদে বাকী ৫ দিনে এ বন্দর থেকে সরকার প্রায় ৮ কোটি টাকার রাজস্ব হারিয়েছে।

প্রসঙ্গত, ব্যবসায়ীরা দু’বার লেবার বিল দিতে রাজি না হওয়ায় গত বৃহস্পতিবার (০১ এপ্রিল) থেকে এ অচল অবস্থার তৈরী হয়েছিল।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

By Editor

Leave a Reply