মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ।

0
3

সাটুরিয়া ( মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি
মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার ৭ম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে এক যুবকের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। ধর্ষক ধামরাই উপজেলার পশ্চিম নান্দেশ^রী গ্রামের ছোহরাব হোসেনের পুত্র হাবিবুর রহমান হাবিব (২৫)। ধর্ষিতা সাটুরিয়া সরকারী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী।

বিষয়টি সাটুরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মতিয়ার রহমান মিঞা নিশ্চিত করে বলেন, ছাত্রীর মা শনিবার রাতে মামলা দায়ের করেছেন। আমরা আসামীকে গ্রেপ্তার করার জন্য শনিবার রাতে ও রবিবার ভোরে অভিযান চালিয়েছি।

ধর্ষিতা ছাত্রীর মা বলেন, আমার স্বামীর ব্যাবসার কারনে সাটুরিয়া বাজারের টিন পট্টির ধর্ষকের শশুর এরশাদ আলী চৌধুরীর ৩ লা ভবনের নিচ তলায় ভারা থাকি। শনিবার সন্ধায় সাড়ে ৬ টার দিকে হাবিবুর রহমান হাবিব আমার বাসায় গিয়ে মেয়েকে একা পেয়ে ধর্ষণ করে। তার চিৎকারে ধর্ষকের শাশুরি শাহনাজ চৌধুরী আমার বাসায় যায়। মেয়ে ধরজা খুলে দিলে হাবিব পালিয়ে যায়। পরে আমার মেয়ে ধর্ষণের কথা সব খুলে বলে।

ছাত্রীর মা আরো বলেন, পরে শনিবার রাতে থানায় গিয় আমি হাবিবুর রহমান হাবিবকে প্রধান আসামী কওে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করি।
এ ঘটনায় আসামীর বাড়িতে গেলে আসামীসহ কাউকে খুজে পাওয়া যায়নি এবং মোবাইল করলেও হাবিব রিসিভ করেনি।

এ ব্যাপারে মো. মতিয়ার রহমান মিঞা বলেন, আমরা ধর্ষণ মামলা নিয়েছি। যার মামলা নয় ৫, তারিখ ১০-১১-২০১৯। ছাত্রীকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবদ করলে ঘটনা খুলে বলে। শনিবার রাত ও রবিবার ভোরে আমরা আসামী বাড়িসহ ২ টি স্থানে অভিযান চালিয়ে আসামীকে গ্রেপ্তার করতে পারিনি। অভিযান অব্যাহত আছে।

ছাত্রীকে আলামতসহ মেডিকেল পরীক্ষার জন্য মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান পুলিশের ঐ কর্মকর্তা।