স্টাফ রিপোর্টার: বগুরার শেরপুরে হোটেলে বসে খাবার খাওয়ানো এবং স্বাস্থ্যবিধি না মেনে অপ্রয়োজনে বাইরে ঘোরাঘুরি করায় শেরপুর উপজেলায় ৭ জনের ২ হাজার ৮০০ টাকা অর্থদন্ড প্রদান করা হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ লিয়াকত আলী সেখ, শেরপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজীউর রহমান এবং শেরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ শহীদুল ইসলাম ৫ এপ্রিল সোমবার শেরপুরে লকডাউন কার্যকরী করতে ধুনট মোড়, কলেজ রোড, হাট-বাজারসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সম্মিলিতভাবে অভিযান পরিচালনা করেন।
জানা যায়, উপজেলা নির্বাহি অফিসার মো. লিয়াকত আলী সেখ সংগীয় অফিসার ও ফোর্সদের সাথে নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে সরকারি আদেশ অমান্য করে হোটেলে বসে খাবার খাওয়ানোর অপরাধে একজনকে ১ হাজার টাকা অর্থদন্ড প্রদান করেন।
এছাড়াও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, সাবরিনা শারমিন লকডাউন কার্যকরী করতে হাসপাতাল রোড, দুবলাগাড়ী, গোসাইবাড়ি বটতলা, বনমরিচা বটতলা, কলেজ রোড, বাসস্ট্যান্ড, বারোদুয়ারী হাট, শেরুয়া বটতলা,শেরশাহ মার্কেট,উত্তরা প্লাজা, জাহানারা কমপ্লেক্স,ডক্টরস কমপ্লেক্স,ধুনট মোড়ে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন।
এ সময় সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে মাস্ক পরিধান ছাড়াই অপ্রয়োজনে বাইরে ঘুরাঘুরি করায় ৬ জনকে ১ হাজার ৮০০ টাকা অর্থদন্ড প্রদান করেন। মোবাইল কোর্টে শেরপুর থানা পুলিশের সদস্যরা এবং শেরপুর উপজেলা ভূমি অফিসের স্টাফবৃন্দ সার্বিক সহযোগিতা করেন।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ লিয়াকত আলী শেখ ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, বলেন লকডাউন কার্যকরী করতে আমরা মোবাইল কোড অব্যাহত রাখব।
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

By Editor

Leave a Reply