ঢাকা ১২:৫৫ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বগুড়ার সান্তাহারে ৭২ হাজার টাকার জাল নোটসহ একজন গ্রেপ্তার জেলা যুবলীগের আয়োজনে ইফতার বিতরণ আদমদীঘিতে স্বামী স্ত্রীকে হত্যার উদ্দেশ্যে মারপিট মামলায় আরো দুইজন গ্রেফতার আদমদীঘিতে ট্রাকের ধাক্কায় একজন নিহত সিরাজদিখানে স্মার্ট বাংলাদেশ বাস্তবায়নে শিক্ষকদের করণীয় শীর্ষক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ধুনট থিয়েটারের আয়োজনে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত বগুড়ায় ঔষধ বাজারে সয়লাব বিক্রি নিষিদ্ধ ফিজিশিয়ান স্যাম্পলে সিরাজগঞ্জে বিশ্ব নাট্য দিবস পালিত মনন সাহিত্য সংগঠনের পাক্ষিক অধিবেশন এবং ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত বগুড়ায় সিএনজি চালিত গাড়ির সিলিন্ডার রি-টেস্টিং শতভাগ নিশ্চিত করা সময়েরদাবী গোমস্তাপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপিত নওগাঁয় সর্প দংশনে এক শিশুর মৃত্যু ( প্রতীকি ছবি) বগুড়ায় ধর্ষণের ঘটনা ধামা চাপা দিতে তামিমকে হত্যা করা হয়েছিলো বগুড়ায় তুচ্ছ ঘটনায় একজন ছুরিকাঘাত বাজার এলাকায় উত্তেজনা হলে ইউএনও ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসে পরিস্থিতি শান্ত করেন। নওগাঁয় প্রভাবশাী ক্ষমতাবলে দীর্ঘ ৩ মাস ধরে গৃহবন্দী পরিবার নওগাঁয় ভূমি অফিসে অভিযান দালাল চক্রের সদস্যকে অর্থদণ্ড নওগাঁর বিভিন্ন দোকানে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান ব্যবসায়ীকে জরিমানা বগুড়ায় ট্রাক ও অটোরিক্সার মুখোমুখি সংঘর্ষে একই পরিবারের ৩ জনসহ নিহত ৪ আহত ২ আদমদীঘিতে শ্বাশুড়ীকে খুনের মামলায় জামাই প্রেফতার নওগাঁয় মাদক ও অসামাজিক কাজ বন্ধের মানববন্ধন টাঙ্গাইলের মধুপুরে কবর থেকে ৫টি কঙ্কাল চুরি

বগুড়ায় এক কৃষকের লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ

আবু বকর সিদ্দিক, স্টাফ রিপোর্টার:
  • আপডেট সময় : ০৭:৩৪:০৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪ ২৭০ বার পড়া হয়েছে

বগুড়ার শেরপুরে এক কৃষকের লাশ উদ্ধার করেছে শেরপুর থানা পুলিশ।

আজ ১৫ জুন শনিবার সকালে উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের গজারিয়া উওরপাড়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। থানা পুলিশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত শেষে লাশটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে। তাঁকে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন পরিবারের সদস্যরা।

মৃত ব্যক্তির নাম আশরাফ মুকুল সরকার (৫০)। তিনি গজারিয়া উওরপাড়া গ্রামের সামসুল হক সরকারের ছেলে। তিনি কৃষিকাজ করতেন।

আশরাফের স্ত্রী হোসনে আরা বেগম জানান, অজ্ঞাত একজনের ফোন পেয়ে শুক্রবার রাত ৯টার দিকে তাঁর স্বামী বাড়িতে থেকে বের হন। রাতের খাবার খেয়ে তিনি ঘুমিয়ে পড়েন। ভোরে তিনি লক্ষ্য করেন স্বামী তখনো বাসায় ফেরেনি।

আশরাফের বড় ভাই রবিউল করিম চাঁন (৬৫) বলেন, সকালে ভাইয়ের বাড়িতে না ফেরার সংবাদ পেয়ে তিনি খুঁজতে বের হন। এরপর বাড়ির পাশেই এক দোকানের পিছনে বাঁশঝাড়ে তাঁর লাশ দেখতে পান। থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে লাশটি নিয়ে যায়।

এই মৃত্যুকে হত্যাকন্ড বলে দাবি করেছে তাঁর পরিবারের সদস্যরা। তাঁদের ধারনা, অজ্ঞাত ব্যক্তিরা আশরাফকে হত্যা করে বাঁশঝাড়ে ফেলে রেখেছে।

নিহতের ভাতিজি মৌসুমি আক্তার (৩০) বলেন, ‘আমার চাচা একজন সুস্থ মানুষ। হঠাৎ করে তিনি ওখানে মরে পড়ে থাকতে পারেন না। তাঁর গলা, ঘাড় ও হাতসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখমের চিহ্ন রয়েছে। নাক ও কান দিয়েও রক্ত ঝরতে দেখা গেছে। এ ছাড়া তাঁর সঙ্গে থাকা মোবাইল ফোন ও জুতাও পাওয়া যাচ্ছে না। তাই এটা স্বাভাবিক মৃত্যু হতে পারে না।’

এ বিষয়ে শেরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম বলেন, ‘লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। মেডিকেল প্রতিবেদন না পাওয়া পর্যন্ত মৃত্যুর প্রকৃত কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত বলা যাচ্ছে না। মেডিকেল প্রতিবেদন রিপোর্ট হাতে পাইলে এ বিষয়ে আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ads

বগুড়ায় এক কৃষকের লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ

আপডেট সময় : ০৭:৩৪:০৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪

বগুড়ার শেরপুরে এক কৃষকের লাশ উদ্ধার করেছে শেরপুর থানা পুলিশ।

আজ ১৫ জুন শনিবার সকালে উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের গজারিয়া উওরপাড়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। থানা পুলিশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত শেষে লাশটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে। তাঁকে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন পরিবারের সদস্যরা।

মৃত ব্যক্তির নাম আশরাফ মুকুল সরকার (৫০)। তিনি গজারিয়া উওরপাড়া গ্রামের সামসুল হক সরকারের ছেলে। তিনি কৃষিকাজ করতেন।

আশরাফের স্ত্রী হোসনে আরা বেগম জানান, অজ্ঞাত একজনের ফোন পেয়ে শুক্রবার রাত ৯টার দিকে তাঁর স্বামী বাড়িতে থেকে বের হন। রাতের খাবার খেয়ে তিনি ঘুমিয়ে পড়েন। ভোরে তিনি লক্ষ্য করেন স্বামী তখনো বাসায় ফেরেনি।

আশরাফের বড় ভাই রবিউল করিম চাঁন (৬৫) বলেন, সকালে ভাইয়ের বাড়িতে না ফেরার সংবাদ পেয়ে তিনি খুঁজতে বের হন। এরপর বাড়ির পাশেই এক দোকানের পিছনে বাঁশঝাড়ে তাঁর লাশ দেখতে পান। থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে লাশটি নিয়ে যায়।

এই মৃত্যুকে হত্যাকন্ড বলে দাবি করেছে তাঁর পরিবারের সদস্যরা। তাঁদের ধারনা, অজ্ঞাত ব্যক্তিরা আশরাফকে হত্যা করে বাঁশঝাড়ে ফেলে রেখেছে।

নিহতের ভাতিজি মৌসুমি আক্তার (৩০) বলেন, ‘আমার চাচা একজন সুস্থ মানুষ। হঠাৎ করে তিনি ওখানে মরে পড়ে থাকতে পারেন না। তাঁর গলা, ঘাড় ও হাতসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখমের চিহ্ন রয়েছে। নাক ও কান দিয়েও রক্ত ঝরতে দেখা গেছে। এ ছাড়া তাঁর সঙ্গে থাকা মোবাইল ফোন ও জুতাও পাওয়া যাচ্ছে না। তাই এটা স্বাভাবিক মৃত্যু হতে পারে না।’

এ বিষয়ে শেরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম বলেন, ‘লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। মেডিকেল প্রতিবেদন না পাওয়া পর্যন্ত মৃত্যুর প্রকৃত কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত বলা যাচ্ছে না। মেডিকেল প্রতিবেদন রিপোর্ট হাতে পাইলে এ বিষয়ে আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।