মোঃ ইমরান ইসলাম,নিয়ামতপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃনওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার পাড়ইল ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান ও এলডিপির জেলা সভাপতি আবু হেনা মোস্তফা কামাল চৌধুরীকে হত্যার উদ্দেশ্যে পরিকল্পিতভাবে দিনে দূপুরে ভাড়াটিয়া গুন্ডা বাহিনীদের নিয়ে সন্ত্রাসী কায়দায় বাড়ীতে হামলা চালানো হয়।

 

এ বিষয়ে আবু হেনা মোস্তফা কামাল চৌধুরীর স্ত্রী আশমাউল হুসনা হিরা বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ২৫ মার্চ বৃহস্পতিবার সকাল ৭টার দিকে উপজেলার পাড়ইল ইউনিয়নের উমরইল গ্রামের মৃত-শুকুর আলীর ছেলে জামাল হোসেন, মৃত- ফুলাল সরদারের ছেলে তজির  সরদার, মৃত- দসিম সরদারের ছেলে  তহির সরদার, মহির সরদার,মৃত- হাকিম উদ্দিনের ছেলে আফাজ উদ্দিন, মৃত- নাদের আলীর ছেলে আব্দুস সাত্তার,মৃত-সমসের আলীর ছেলে হবির, হবিরের ছেলে রফিকুল,শফিকুল সহ ২০ থেকে ২২জন দলবদ্ধ হয়ে বীরজোয়ান গ্রামের মৃত- আব্দুল হালিম চৌধুরীর ছেলে, সাবেক পাড়ইল ইউপি চেয়ারম্যান ও এলডিপির জেলা সভাপতি আবু হেনা মোস্তফা কামাল চৌধুরীর বাড়ীতে জোরপূর্বক প্রবেশ করে।

 

প্রথমে তাঁর স্ত্রীকে শ্লীলতাহানির উদ্দেশ্যে পরনের কাপড় ছিড়ে ফেলে। স্বামী আবু হেনা মোস্তফা কামাল চৌধুরী স্ত্রীকে রক্ষা করার জন্য এগিয়ে আসলে উল্লেখিত ব্যক্তিরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে এগিয়ে আসলে। আবু হেনা মোস্তফা কামাল পালিয়ে যায় । তখন স্ত্রী আশমাউল হুসনা হিরার আত্ম চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। আবু হেনা মোস্তফা কামাল চৌধুরী বলেন,জায়গা জমির বিরোধের জের ধরে প্রতিবেশিরা গুন্ডা বাহিনী নিয়ে আমার বাড়িতে হামলা চালায়।

 

আমাকে ও আমার স্ত্রী সন্তানকে হত্যা করে নির্বংশ করে দেবে বলেও হুমকি দেয়। একটুর জন্য আমি প্রাণে বেঁচে গিয়েছি। তবে তারা আমার স্ত্রীর পরনের কাপড় ছিড়ে ফেলে শ্লীলতাহানি করে। আমার বাড়ির আসবাবপত্র ভাংচুর করে।

 

এ বিষয়ে নিয়ামতপুর থানার অফিসার ইন চার্জ হুমায়ন কবির জানান, অফিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

By Editor

Leave a Reply