মোঃ ইমরান ইসলাম,নিয়ামতপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ নওগাঁর নিয়ামতপুরে রোপিত আউশ ধানের চারা সম্পূর্ণ নষ্ট করে দিয়েছে প্রতিপক্ষরা। বুধবার(০৯ জুন)  বেলা দেড়টায় উপজেলার হাজিনগর ইউনিয়নের ফতেপুর মৌজায় এ ঘটনা ঘটে।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, উপজেলার হাজিনগর ইউনিয়নের ফতেপুর গ্রামের মৃত নিভর্ষী মন্ডলের স্ত্রী রোকেয়া বেগম স্ত্রী হিসাবে কাবিননামা সূত্রে দেনমোহর বাবদ জমির মালিকা পেয়ে উপজেলার চৌপুকুরিয়া গ্রামের মৃত- কছির উদ্দিনের ছেলে আব্দুল মজিদ মন্ডলের নিকট ফতেপুর মৌজার এস এ ৬৪ নম্বর খতিয়ানের ১৬৯, ১৮১, ১৮৬, ১৯১ নম্বর দাগ যা আরএস ৬৮ নম্বর খতিয়ানের ৩৪৩, ৩৫৪, ৩৫৯, ৩৭৩ নম্বর দাগে ১ একর ৩২ শতাংশ জমি ১৯৯২ সালে বিক্রয় করে। আব্দুল মজিদ ক্রয় সূত্রে প্রাপ্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ভোগ দখল করে আসছেন।
হঠাৎ ফতেপুর গ্রামের মৃত- জাহার আলীর ছেলে মোহাম্মাদ আলীর নেতৃত্বে  ১৫/২০ জন ভাড়াটিয়া লাঠিয়াল বাহিনী নিয়ে আকস্মিক ভর দুপুরে জমিতে নেমে চাষ করে একদিন আগের রোপন করা আউশ ধানের চারা সম্পূর্ণ নষ্ট করে পালিয়ে যায়।আব্দুল মজিদ মন্ডল এ প্রতিবেদককে বলেন, আমি ১৯৯২ সালে রোকেয়া বেগমের কাছ থেকে ১ একর ৩২ শতাংশ জমি ক্রয় করি।
সে সময় থেকে অদ্যবধি জমি আমি ভোগ দখল করে আসছি। হঠাৎ ফতেপুর গ্রামের মৃত জাহার আলীর ছেলে মোহাম্মাদ আলী কিছু ভাড়াটিয়া লাঠিয়াল বাহিনী নিয়ে আমার লাগানো ৪ বিঘা আউশ চারা লাগানো জমি চাষ করে সম্পূর্ণ নষ্ট করে দেয়। মোহাম্মাদ আলী নিভর্ষীর ওয়ারিশ দাবী করলেও প্রকৃতপক্ষে তারা নিভর্ষীর কেউ নন।
মোহাম্মাদ আলীর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ বিষয়ে কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

By Editor

Leave a Reply