ঢাকা ১১:৩০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বগুড়ার সান্তাহারে ৭২ হাজার টাকার জাল নোটসহ একজন গ্রেপ্তার জেলা যুবলীগের আয়োজনে ইফতার বিতরণ আদমদীঘিতে স্বামী স্ত্রীকে হত্যার উদ্দেশ্যে মারপিট মামলায় আরো দুইজন গ্রেফতার আদমদীঘিতে ট্রাকের ধাক্কায় একজন নিহত সিরাজদিখানে স্মার্ট বাংলাদেশ বাস্তবায়নে শিক্ষকদের করণীয় শীর্ষক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত ধুনট থিয়েটারের আয়োজনে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত বগুড়ায় ঔষধ বাজারে সয়লাব বিক্রি নিষিদ্ধ ফিজিশিয়ান স্যাম্পলে সিরাজগঞ্জে বিশ্ব নাট্য দিবস পালিত মনন সাহিত্য সংগঠনের পাক্ষিক অধিবেশন এবং ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত বগুড়ায় সিএনজি চালিত গাড়ির সিলিন্ডার রি-টেস্টিং শতভাগ নিশ্চিত করা সময়েরদাবী গোমস্তাপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপিত নওগাঁয় সর্প দংশনে এক শিশুর মৃত্যু ( প্রতীকি ছবি) বগুড়ায় ধর্ষণের ঘটনা ধামা চাপা দিতে তামিমকে হত্যা করা হয়েছিলো বগুড়ায় তুচ্ছ ঘটনায় একজন ছুরিকাঘাত বাজার এলাকায় উত্তেজনা হলে ইউএনও ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসে পরিস্থিতি শান্ত করেন। নওগাঁয় প্রভাবশাী ক্ষমতাবলে দীর্ঘ ৩ মাস ধরে গৃহবন্দী পরিবার নওগাঁয় ভূমি অফিসে অভিযান দালাল চক্রের সদস্যকে অর্থদণ্ড নওগাঁর বিভিন্ন দোকানে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান ব্যবসায়ীকে জরিমানা বগুড়ায় ট্রাক ও অটোরিক্সার মুখোমুখি সংঘর্ষে একই পরিবারের ৩ জনসহ নিহত ৪ আহত ২ আদমদীঘিতে শ্বাশুড়ীকে খুনের মামলায় জামাই প্রেফতার নওগাঁয় মাদক ও অসামাজিক কাজ বন্ধের মানববন্ধন টাঙ্গাইলের মধুপুরে কবর থেকে ৫টি কঙ্কাল চুরি

আদমদীঘির কোদবাউর-বিষ্ণুপুর সড়কের বেহাল দশা 

মো: সজীব হাসান,( আদমদিঘী) প্রতিনিধি:
  • আপডেট সময় : ০২:২৭:১০ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ জুলাই ২০২৪ ৪২ বার পড়া হয়েছে

বগুড়া জেলার  আদমদীঘি উপজেলার পরচিত  কোদবাউর-বিষ্ণুপুর গ্রাম। বর্তমানে সড়কটি  কাঁচা অবিরাম বৃষ্টির কারণে এখন কাদামাটি হয়ে গেছে। এছাড়া সড়কে প্রতিদিন সীমাহীন দুর্ভোগ নিয়ে শত শত মানুষ বিভিন্ন কাজকর্মে জীবনের তাগিদে ও বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা এ রাস্তা দিয়ে প্রতিনিয়ত যাতায়াত করে।গত কয়েক দিনের বৃষ্টিতে সড়কের মাটি ভিজে গর্ত সৃষ্টি হয়ে কাদা পানিতে একাকার হয়ে গেছে। যার ফলে সিমাহীন দুর্ভোগে পড়েছেন ওই এলাকার চার গ্রামের যাতায়াতকারী প্রায় পাঁচ হাজার মানুষ। গ্রামবাসী সূত্রে জানা গেছে  প্রায় দুই বছর আগে দেড় কিলোমিটার এই কাঁচা সড়কের অর্ধেক অংশ কার্পেটিং করে চলাচলের উপযোগী করেন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর এলজিইডি। এরপর ওই কাঁচা সড়কের অবশিষ্ট অর্ধেক কার্পেটিং কাজ না হওয়ার কারনে  সামান্য বৃষ্টিতেই সড়কে কাঁদা পানিতে একাকার হয়ে যায়। এতে করে যানচলাচল সহ  চলাচলে সীমাহীন দুর্ভোগের শিকার  হচ্ছেন সাধারণ মানুষ সহ  স্কুল ও কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা। তাই যথা শীঘ্রই  এই সড়কের বাকী অংশের পাকাকরণ কাজ করার দাবি জানিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন এলাকাবাসী। জানা যায় উপজেলার সদর থেকে মাত্র আড়াই কিলোমিটার পূর্বে কোদবাউর-বিষ্ণুপুর কোলাদীঘি ও পুশিন্দা গ্রামের মানুষ এই কাঁচা সড়ক দিয়ে প্রতিদিন কয়েক হাজার মানুষ চলাচল করে থাকেন। ওই চার গ্রামের লোকজন ও স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা জেলা উপজেলা সদরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম এই সড়কটি। বর্ষা মৌসুমে সড়কে কাদামাটি ও খরা মৌসুমে ধূলোবালিতে সয়লাব হয়ে পথচারীদের চলাচলে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়। গত ২০২১-২০২২ অর্থ বছরে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর এলজিইডি দেড় কিলোমিটার ওই সড়কের ৭০০ মিটার কার্পেটিং কাজ করে। অবশিষ্ট অর্ধেক কাঁচা এই সড়কটি পাকাকরণ করা হয়নি। বর্তমানে এই কাঁচা সড়ক দিয়ে যাতায়াত করা অটো, ভ্যান, রিক্সা, মোটরসাইকেল, স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীসহ কৃষকের উৎপাদিত পন্য বাজারে নেয়ার সময় অসহনীয় দুর্ভোগে পড়তে হয়। বিষ্ণুপুর গ্রামের কৃষক শাহাজান আলী জানান  বৃষ্টি হলে এ সড়ক দিয়ে চলতে খুব সমস্যা হয়। কাঁদাপানিতে জামাকাপড় নষ্ট হয়ে যায়। স্থানীয় ইউপি সদস্য গোলাম রব্বানী জানান এই সড়কটি অনেক পুরাতন। অবশিষ্ট অংশ পাকাকরণ না হওয়ায় জনগনের অনেক দুর্ভোগ হচ্ছে। এ বিষয়ে  আদমদীঘি উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী  রিপন কুমার সাহা জানান সড়কটির কিছু অংশ কার্পেটিং করা হলেও বাকি অংশটুকু পাকাকরণের জন্য তালিকা প্রেরণ করা হয়েছে। বরাদ্দ এলে পাকাকরণ করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ads

আদমদীঘির কোদবাউর-বিষ্ণুপুর সড়কের বেহাল দশা 

আপডেট সময় : ০২:২৭:১০ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ জুলাই ২০২৪

বগুড়া জেলার  আদমদীঘি উপজেলার পরচিত  কোদবাউর-বিষ্ণুপুর গ্রাম। বর্তমানে সড়কটি  কাঁচা অবিরাম বৃষ্টির কারণে এখন কাদামাটি হয়ে গেছে। এছাড়া সড়কে প্রতিদিন সীমাহীন দুর্ভোগ নিয়ে শত শত মানুষ বিভিন্ন কাজকর্মে জীবনের তাগিদে ও বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা এ রাস্তা দিয়ে প্রতিনিয়ত যাতায়াত করে।গত কয়েক দিনের বৃষ্টিতে সড়কের মাটি ভিজে গর্ত সৃষ্টি হয়ে কাদা পানিতে একাকার হয়ে গেছে। যার ফলে সিমাহীন দুর্ভোগে পড়েছেন ওই এলাকার চার গ্রামের যাতায়াতকারী প্রায় পাঁচ হাজার মানুষ। গ্রামবাসী সূত্রে জানা গেছে  প্রায় দুই বছর আগে দেড় কিলোমিটার এই কাঁচা সড়কের অর্ধেক অংশ কার্পেটিং করে চলাচলের উপযোগী করেন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর এলজিইডি। এরপর ওই কাঁচা সড়কের অবশিষ্ট অর্ধেক কার্পেটিং কাজ না হওয়ার কারনে  সামান্য বৃষ্টিতেই সড়কে কাঁদা পানিতে একাকার হয়ে যায়। এতে করে যানচলাচল সহ  চলাচলে সীমাহীন দুর্ভোগের শিকার  হচ্ছেন সাধারণ মানুষ সহ  স্কুল ও কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা। তাই যথা শীঘ্রই  এই সড়কের বাকী অংশের পাকাকরণ কাজ করার দাবি জানিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন এলাকাবাসী। জানা যায় উপজেলার সদর থেকে মাত্র আড়াই কিলোমিটার পূর্বে কোদবাউর-বিষ্ণুপুর কোলাদীঘি ও পুশিন্দা গ্রামের মানুষ এই কাঁচা সড়ক দিয়ে প্রতিদিন কয়েক হাজার মানুষ চলাচল করে থাকেন। ওই চার গ্রামের লোকজন ও স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা জেলা উপজেলা সদরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম এই সড়কটি। বর্ষা মৌসুমে সড়কে কাদামাটি ও খরা মৌসুমে ধূলোবালিতে সয়লাব হয়ে পথচারীদের চলাচলে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়। গত ২০২১-২০২২ অর্থ বছরে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর এলজিইডি দেড় কিলোমিটার ওই সড়কের ৭০০ মিটার কার্পেটিং কাজ করে। অবশিষ্ট অর্ধেক কাঁচা এই সড়কটি পাকাকরণ করা হয়নি। বর্তমানে এই কাঁচা সড়ক দিয়ে যাতায়াত করা অটো, ভ্যান, রিক্সা, মোটরসাইকেল, স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীসহ কৃষকের উৎপাদিত পন্য বাজারে নেয়ার সময় অসহনীয় দুর্ভোগে পড়তে হয়। বিষ্ণুপুর গ্রামের কৃষক শাহাজান আলী জানান  বৃষ্টি হলে এ সড়ক দিয়ে চলতে খুব সমস্যা হয়। কাঁদাপানিতে জামাকাপড় নষ্ট হয়ে যায়। স্থানীয় ইউপি সদস্য গোলাম রব্বানী জানান এই সড়কটি অনেক পুরাতন। অবশিষ্ট অংশ পাকাকরণ না হওয়ায় জনগনের অনেক দুর্ভোগ হচ্ছে। এ বিষয়ে  আদমদীঘি উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী  রিপন কুমার সাহা জানান সড়কটির কিছু অংশ কার্পেটিং করা হলেও বাকি অংশটুকু পাকাকরণের জন্য তালিকা প্রেরণ করা হয়েছে। বরাদ্দ এলে পাকাকরণ করা হবে।