আহসান হাবিব শিমুল আদমদিঘি প্রতিনিধি : বগুড়ার আদমদীঘিতে জেসমিন আক্তার নামের ২০ বছরের এক যুবতী হঠাৎ করে যুবকে পরিনত হয়েছে। প্রাকৃতিক ভাবে যুবকে পরিনত হওয়ায় তার নাম রাখা হয়েছে জোবাইদ মন্ডল। সে উপজেলার নসরতপুর ইউনিয়নের লক্ষিপুর গ্রামের জালাল মন্ডলের সন্তান।

বুধবার সকালে ঘটনাটি জানাজানি হবার পর তাকে নিজ চোখে দেখতে ওই গ্রামসহ আশপাশের গ্রামের উৎসুক নারী-পুরুষ জনতার ভীড় শুরু হয়েছে। ভীড় সামলাতে হিমসিম অবস্থা তার বাবা-চাচাদের। ভীড় এড়াতে তাকে একেক সময় একেক বাড়িতে রাখতে হচ্ছে। তার পরও নিস্তার মিলছে না।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সরেজমিন জানা গেছে, ওই গ্রামের জালাল মন্ডলের মেয়ে জেসমিন আক্তার একই ইউনিয়নের শাওইল গ্রামে তার নানা বাড়িতে থেকে শাওইল দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়ালেখা করত।

দশম শ্রেণিতে পড়ার সময় করোনাকালীন ছুটি হয়। ফলে এসএসসি পরীক্ষার ফরম ফিলাপ করা হয় নি। জোবাইদ মন্ডল জানায়, গত তিন মাস ধরে তার শারীরিক পরিবর্তন হওয়া শুরু করে। গত দেড় মাসের মধ্যে সে পুরোপুরি ছেলেতে পরিনত হয়। বিষয়টি সে তার নানা মোবারক আলীকে জানায়। এর পর নানা মোবারক চিকিৎসকের সরণাপন্ন হন। ঢাকার শাজাহানপুরে ইসলামী হাসপাতালে ডা. সৈয়দ শামসুদ্দিন আহমেদ তাকে পরীক্ষা নীরিক্ষা করেন।

তাকে জানানো হয় তার শরীরে অতিরিক্ত পরিমান পুরুষ হরমোন থাকায় সে মেয়ে থেকে ছেলেতে রুপান্তর হয়েছে। ১৪ থেকে ২০ বছরের মধ্যে এমনটি হয়ে থাকে। জোবাইদ মন্ডল আরো বলেন, সে ছেলেতে রুপান্তর হওয়ায় বেশ খুশি। ছেলেতে পরিনত হবার পরই সে ছেলেদের মত করে চুল কেটেছে।

Spread the love
  •  
  • 408
  •  
  •  
  •  
  •  

By Editor

Leave a Reply